বৃহস্পতিবার,২০শে সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ইং


ভাইদের ফাঁসাতে নিজের মেয়েকে কুুুুপিয়ে হত্যা করেছে বাবা!


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
০৮.০৩.২০১৮

ডেস্ক রিপোর্ট :

দয়ারাবাজারে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে দুই ভাইকে ফাঁসাতে ৭ বছরের মেয়েকে কুপিয়ে হত্যা করেছে বাবা। পুলিশ পাষন্ড পিতা মামুনুর রশিদকে (৪০) আটক করেছে। বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টায় সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু ঘটে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, উপজেলার পান্ডারগাঁও ইউনিয়নের জলসি গ্রামের দুবাই প্রবাসী মামুনুর রশিদের সঙ্গে তার সহোদর রফিকুল ইসলাম ও চাচাতো ভাই সফিকুল ইসলামের দীর্ঘদিন ধরে জমিজমা নিয়ে বিরোধ রয়েছে। সম্প্রতি মামুনুর রশিদ দেশে আসলে এই বিরোধ আরও বেড়ে যায়।

বুধবার দুপুর দেড়টায় মামুনুর রশিদ নিজের মেয়ে মাইশাকে গলায় এবং হাতের কব্জিতে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে। গুরুতর আহত শিশু কন্যা মাইশা চিৎকার দিলেও পাষন্ড পিতা তাকে হাসপাতালে না নিয়ে ঘরে আটকে রাখে। পরে দা হাতে নিয়ে পরিবারের লোকজনকে জিম্মি করে রাখে। মেয়েটিকে চিকিৎসায়ও নিতে দেয়নি পাষন্ড পিতা।

স্থানীয়রা টের পেয়ে থানা পুলিশকে খবর দেন। পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে মেয়েটিকে উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য পাঠায়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টায় হাসপাতালে তার মৃত্যু ঘটে। স্থানীয় লোকজন বলেছেন, আপন ভাইদের ফাঁসানোর জন্য মামুনুর রশিদ তার শিশু কন্যা মাইশাকে কুপিয়ে হত্যা করেছে।

দয়ারাবাজার থানার ওসি সুশিল রঞ্জন দাস বলেন, নিজের কন্যাকে কুপিয়ে হত্যার দায়ে বাবা মামুনুর রশিদকে আটক করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে জানা গেছে ভাই রফিক ও সফিককে ফাঁসানোর জন্য সে এই ঘটনা ঘটিয়েছে।

পূর্বাশানিউজ/ ০৮ মার্চ ২০১৮/মাহি



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি