বুধবার,২০শে জুন, ২০১৮ ইং


ওবায়দুল কাদের বেসামাল মিথ্যাবাদী: রিজভী


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
১০.০৩.২০১৮

পূর্বাশা ডেস্ক:

বিএনপির অবস্থান কর্মসূচিতে পুলিশের হানার বিষয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের বক্তব্যের জন্য তাকে ‘বেসামাল মিথ্যাবাদী’ বলেছেন রুহুল কবির রিজভী।

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন,আওয়ামী লীগ ‘পাপ’ ঢাকাতেই বিএনপিকে নিয়ে ‘মিথ্যা’ কথা বলে। শনিবার নয়াপল্টনের দলীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখছিলেন তিনি।

খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে গত বৃহস্পতিবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বিএনপির অবস্থান কর্মসূচি থেকে গোয়েন্দারা ছাত্রদলের এক নেতাকে গ্রেপ্তার করে। এরপর কর্মসূচি পণ্ড হয়ে যায়।

শুক্রবার নারায়ণগঞ্জে সাংবাদিকদের রিজভী বলেন, ‘বৃহস্পতিবারের যে ঘটনা ঘটেছে এ ঘটনার জন্য তারাই দায়ী। প্রেসক্লাবের সামনে যে রাস্তা, সেটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এ রাস্তাটা বন্ধ করে কেউ যদি সমাবেশ করে, সেই অবস্থায় পুলিশ হস্তক্ষেপ করবেই। কারণ রাস্তা বন্ধ করে সভা সমাবেশ করা বেআইনি।’

এক প্রতিক্রিয়ায় রিজভী বলেন, ‘আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সাহেব একজন বেসামাল মিথ্যাবাদী। তিনি বলেছেন-বিএনপি বেআইনিভাবে সমাবেশ করেছেন। এতবড় টাটকা মিথ্যা কথা তিনি কীভাবে বললেন?’।

‘আমরা পুলিশকে অবহিত করেছি এবং পুলিশের অনুমতি নিয়েই সমাবেশ শুরু হয়েছিল। আওয়ামী নেতারা নিজেদের পাপ ঢাকতেই মিথ্যা কথা বলেন। পুলিশ বিএনপির কর্মসূচিতে অবাঞ্ছিত অনুপ্রবেশ করেছে।’

আওয়ামী লীগের রাজনীতি স্ববিরোধিতায় ভরা বলেও মন্তব্য করেন রিজভী। বলেন, ‘তারা (আওয়ামী লীগ) মুখে যেটি বলবে কাজ করবে তার বিপরীত। এরা বিএনপির কর্মসূচির অনুমতি দেয়ার পর পুলিশকে বলবে পিস্তল নিয়ে কর্মসূচির ওপর ঝাঁপিয়ে পড়তে। এরা সভা চলাকালীন অবস্থায় বিএনপি নেতাদেরকে টেনে হিঁচড়ে গাড়িতে তুলবে।’

আগামী ১২ মার্চ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে জনসভার অনুমতি পাওয়ার বিষয়ে বিএনপি এখনও আশাবাদী বলেও জানানো হয় সংবাদ সম্মেলনে। রিজভী বলেন, ‘সোহরাওয়ার্দী উদ্যান ছাড়া আমরা বিকল্প ভেন্যুর কথা ভাবছি না।’

সিইসির সমালোচনা

নির্বাচনে কোনো দলকে আনতে নতুন কোনো উদ্যোগ নেয়া হবে না বলে প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদার বক্তব্যেরও নিন্দা জানান রিজভী। তিনি প্রশ্ন রাখেন, ‘তাহলে কি প্রধান নির্বাচন কমিশনার একতরফা নির্বাচনের দিকেই এগিয়ে যাচ্ছেন?’

‘তাহলে নির্বাচন নির্বাচন জিকিরের তো দরকার নেই। নির্বাচনী সিডিউল ঘোষণা করে পরের দিনেই ক্ষমতাসীন দলকে বিজয়ী ঘোষণা করলেই তো পারেন।’

নির্বাচন নিয়ে প্রধানমন্ত্রী ও ক্ষমতাসীন দল ‘অনাচার’ শুরু করেছে অভিযোগ করে বিএনপি নেতা বলেন, ‘শেখ হাসিনার দুর্বিনীত দুঃশাসনকে প্রলম্বিত করার জন্য প্রধান নির্বাচন কমিশনার ভোটারবিহীন একতরফা নির্বাচনের দিকে এগিয়ে গেলে দেশে চরম অরাজকতা সৃষ্টি হবে। এজন্য দায়ী থাকবেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার।’

বিএনপি নেতা বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী সরকারি খরচে হেলিকপ্টারে করে দেশের বিভিন্ন এলাকায় নৌকা মার্কায় ভোট চেয়ে বেড়াচ্ছেন, আর এদিকে নির্বাচন কমিশন দেখেও না দেখার ভান করে আছে। অথচ জাতীয় নির্বাচনে সকল দলকে সমান সুযোগ এবং লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরির দায়িত্ব নির্বাচন কমিশনের। প্রধান নির্বাচন কমিশনার তার বক্তব্য ও আচরণে একটা অবাধ-সুষ্ঠু নির্বাচন করতে আগ্রহী বলে মনে হয় না।’

‘নির্বাচনী মাঠ সমতল হওয়ার প্রথম শর্ত হল খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেওয়া ও সহায়ক সরকারের মাধ্যমে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়া।’

পূর্বাশানিউজ/ ১০ মার্চ ২০১৮/রুমকী



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি