শনিবার,১৫ই ডিসেম্বর, ২০১৮ ইং


আসন ভাগাভাগি নিয়ে ২৩ দলীয় জোট ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের দ্বিমুখী চাপে বিএনপি


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
১৬.১১.২০১৮

ডেস্ক রিপোর্ট:

নিবন্ধন হারানো দল হিসেবে বা দাঁড়িপাল্লা প্রতীকে নির্বাচনে লড়তে পারবে না জামায়াত। এমন অবস্থায় অন্তত ৫০টি আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার প্রস্তুতি নিচ্ছে দলটি। এরইমধ্যে আসন ভাগাভাগি নিয়ে বিএনপির সঙ্গে দর কষাকষি শুরু করেছে দলটি। এ অবস্থায় ধানের শীষ প্রতীক অথবা স্বতন্ত্রভাবে ভোটে লড়ার কথা জানিয়েছেন জামায়াতের সেক্রেটারি জেনারেল ডা. শফিকুর রহমান। সূত্র : ডিবিসি নিউজ

মানবতাবিরোধী অপরাধের বিচার শুরুর পর থেকেই বেকায়দায় জামায়াতে ইসলামী। রাজনৈতিক দল হিসেবে ইসি’র নিবন্ধন হারানোয় দল হিসেবেও নির্বাচনে অযোগ্য দলটি; ব্যবহার করতে পারছে না দাড়িপাল্লা প্রতীকও। সংকটের মধ্যেও একাদশ সংসদ নির্বাচনে অংশ নেওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছে বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের শরিক জামায়াত। এরইমধ্যে ৬১ আসন থেকে স্বতন্ত্রপ্রার্থী হয়েছেন দলটির নেতারা।

নবম সংসদ নির্বাচনে ৩৯টি আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে জামায়াত। এরমধ্যে ৩৩টি আসনে বিএনপির কোনো প্রার্থী ছিল না। জোটের কাছ থেকে এবার আরও বেশি আসনে ছাড় প্রত্যাশা করছে জামায়াত।

জামায়াতে ইসলামী সেক্রেটারি জেনারেল ডা. শফিকুর রহমান বলেন, ‘নির্বাচনি প্রক্রিয়া আর আসন ভাগাভাগি প্রক্রিয়া মাত্র শুরু হলো। এর পরিণতি দেখতে আরো একটু অপেক্ষা করতে হবে। আমরা কমপক্ষে ৫০ থেকে ৬০টা আসনে নির্বাচন করবো।’
আসন ভাগাভাগি নিয়ে ২৩ দলীয় জোট ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের দ্বিমুখী চাপে থাকা বিএনপি বলছে, জামায়াতকে ৩০ থেকে ৩৫ আসন ছাড়া হতে পারে।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী আসন ভাগাভাগি কথাটি মানতে নারাজ। তিনি বলেন, ‘বর্তমান অবস্থা থেকে মুক্ত হবার জন্য যেখানে যেটা প্রয়োজন, যতখানি ত্যাগের প্রয়োজন, সেটা করতে সব পক্ষই প্রস্তুত আছে। সুতরাং সিট ভাগাভাগি শব্দটা আমার কাছে গ্রহণযোগ্য না।’

দলীয় প্রতীক দাড়িপাল্লা ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা থাকায় জোটের অন্য কোনো নিবন্ধিত দলের প্রতীক অথবা স্বতন্ত্রভাবে নির্বাচনের পথ খোলা রয়েছে জামায়াতের। দলটি ধানের শীষ প্রতীক ব্যবহার করতে চাইলে আপত্তি নেই বিএনপির।

জামায়াতে ইসলামী সেক্রেটারি জেনারেল বলেন, ‘আমরা আসন বন্টন এবং প্রতীক নিয়ে আলোচনা করবো। নির্বাচন পেছানোর কারনে সময় যেহেতু একটু হাতে আছে, তাই আমরা সঠিক সিদ্ধান্তে পৌঁছাতে পারব বলে বিশ্বাস করি। স্বতন্ত্র প্রতীকে বড় কোন সমস্যা হবে বলে আমরা মনে করি না।’

প্রতীক বিষয়ে আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী জানান, ‘ধানের শীষ প্রতীক দিয়ে যদি কেউ নির্বাচন করতে চায় তো করবে। আর তার বাইরে কেউ কোন প্রতীক দিয়ে নির্বাচন করতে চাইলেও কোন আপত্তি নেই।’

সারাদেশে ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থীদের পক্ষে কাজ করার কথাও জানান জামায়াতের সেক্রেটারি জেনারেল।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি