[bangla_day],[english_date]
  • প্রচ্ছদ »জাতীয় » ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের স্থগিত ৩ কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ শুরু


ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের স্থগিত ৩ কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ শুরু


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
09.01.2019

ডেক্স রিপোর্টঃ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনে স্থগিত হওয়া ৩টি কেন্দ্রে পুনঃভোট গ্রহণ সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়েছে। চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত।

জেলার আশুগঞ্জ ও সরাইল উপজেলা নিয়ে গঠিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ নির্বাচনী আসন।

গত ৩০ ডিসেম্বর দেশের ২৯৯ আসনে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। কিন্তু ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের ৩টি কেন্দ্রে ব্যালট বাক্স ছিনতাই ও সংঘর্ষসহ নানা কারণে ভোটগ্রহণ স্থগিত থাকায় ফলাফল ঘোষণা করা হয়নি।

স্থগিত হওয়া তিনটি কেন্দ্রই আশুগঞ্জ উপজেলায়। এগুলো হলো- যাত্রাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, সোহাগপুর দক্ষিণ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও বাহাদুরপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। জেলা প্রশাসক ও রিটার্নিং কর্মকর্তা হায়াত উদ দৌলা খান মঙ্গলবার জানান, তিনটি কেন্দ্রে সুষ্ঠু নির্বাচন করতে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করা হয়েছে। আইন-শৃঙ্খলা স্বাভাবিক রাখতে একজন অতিরিক্ত উপ-মহাপরিদর্শক (অতিরিক্ত ডিআইজি) এর নেতৃত্বে ৫ শ পুলিশ এবং পর্যাপ্ত বিজিবি ও র‌্যাব সদস্য মোতায়েন করা হচ্ছে। এ ছাড়াও ১২ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাঠে থাকবেন।

গত ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে এ আসনে মোট ১৩ জন প্রার্থী অংশগ্রহণ করেন। যদিও সেখানে মহাজোটের কোনো প্রার্থী নেই। ফলে সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মঈন উদ্দিন মঈন স্বতন্ত্র প্রার্থী পেয়েছেন ৭২ হাজার ৫৬৪ ভোট।

অপরদিকে, বিএনপি মনোনীত ঐক্যফ্রন্টের ধানের শীষের প্রার্থী উকিল আবদুস সাত্তার ভূঁইয়া পান ৮২ হাজার ৭২৩ ভোট। স্থগিত তিনটি কেন্দ্রে মোট ভোটার সংখ্যা ১০ হাজার ৫৭৪। এখানে ধানের শীষের প্রার্থী ১০ হাজার ১৫৯ ভোটে এগিয়ে আছেন। ফলে এই আসনটি পেতে হলে মঈন উদ্দিনকে প্রায় সবগুলো অর্থাৎ ১০ হাজার ৫৭৪ ভোটের মধ্যে কমপক্ষে ১০ হাজার ১৬০ ভোট পেতে হবে। এটা সম্ভব হবে যদি আবদুস সাত্তার ভূঁইয়া আর কোনো ভোট না পান এবং শতভাগ ভোট কাস্ট হয়।

তবে গত ৫ জানুয়ারি ঐক্যফ্রন্ট প্রাথী উকিল আব্দুস সাত্তার ভূঁইয়া তার নিজ বাসভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে ভোট কাস্ট নিয়ে শঙ্কা প্রকাশ করেন। এ সময় তিনি সাংবাদিকদের লিখিত বক্তব্যে বলেন, স্থগিত তিন কেন্দ্রে মোট ভোটারের ৫৬৩ জন মৃত ও বিদেশে অবস্থান করছেন। মোট ভোট থেকে বিদেশ অবস্থানরত ও মৃত ভোটারদের সংখ্যা বাদ দিলে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী থেকে ভোটে বেশি থাকি। যা নির্বাচন কমিশন তদন্ত সাপেক্ষ ব্যবস্থা নিলে ওই তিনটি কেন্দ্রে পুনঃভোট প্রয়োজন হয় না।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি