[bangla_day],[english_date]
  • প্রচ্ছদ »আন্তর্জাতিক » পাকিস্তানের শিশুরা ইনজেকশনের সিরিঞ্জ থেকে এইচআইভি আক্রান্ত হচ্ছে,  ডাক্তার গ্রেপ্তার


পাকিস্তানের শিশুরা ইনজেকশনের সিরিঞ্জ থেকে এইচআইভি আক্রান্ত হচ্ছে,  ডাক্তার গ্রেপ্তার


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
22.05.2019

ডেস্ক রিপোর্ট : সন্তানের অসুস্থতায় উদ্বিগ্ন বাবা-মা। কমছে না কাঁপুনি দিয়ে ওঠা জ্বর। নিয়ে গেলেন ডাক্তারের কাছে। পাকিস্তানের দক্ষিণাঞ্চলের ছোট শহর র‌্যাট্টো ডেরোতে এক সপ্তাহের মধ্যে বাড়লো এই জ্বরে আক্রান্ত শিশুর সংখ্যা। সরকারি হাসপাতালের ডা. ইমরান আরবানিকে ভাবিয়ে তোলে বিষয়টি। তিনি শিশুদের রক্ত পরীক্ষার ব্যবস্থা করেন। ফলাফলে শিশুদের রক্তে এইচআইভি রোগের সংক্রমণ ধরা পড়ে। কিন্তু কেউ জানে না কেন, কীভাবে এই ভাইরাস তাদের শরীরে ছড়িয়ে পড়েছে।

গত ২৪ এপ্রিল পর্যন্ত ওই এলাকার আক্রান্ত শিশুর সংখ্যা ছিলো ১৫। যাদের বাবা-মা কেউই এইচআইভি আক্রান্ত নয় বলে জানান চিকিৎসকরা। কিন্তু এটি ছিলো প্রাথমিক অবস্থা মাত্র। গত মাসে এইচআইভি আক্রান্তদের জন্য সিন্ধু প্রদেশের সরকারি স্বাস্থ্য বিভাগের পরিচালনায় একটি বিশেষ ক্যাম্প স্থাপন করা হয়েছে। পরীক্ষা-নিরীক্ষায় দেখা গেছে ৬০৭ জন আক্রান্তের মধ্যে ৭৫ শতাংশই শিশু। যাদের বয়স এক মাস থেকে ১৫ বছর পর্যন্ত।

কারণ খুঁজতে গিয়ে জানা গেলো, হাতুড়ে ডাক্তারের কারণে শিশুদের জীবনে এই দুর্যোগ। পাকিস্তানে অসংখ্য হাতুড়ে ডাক্তার রয়েছে। কম টাকায় চিকিৎসা পাওয়ার আশায় মানুষ তাদের শরণাপন্ন হন। এমনি একজন ‘কথিত’ শিশু বিশেষজ্ঞ ডা. মোজাফফর ঘাংরো। তিনি একই সিরিঞ্জ দিয়ে অনেক শিশুকে ইনজেকশন দেন। এ কারণেই শিশুরা গণহারে এইচআইভি সংক্রমণের শিকার হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞদের। এই অপরাধের দায়ে ডা. মোজাফফর ঘাংরোকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

তবে ডা. মোজাফফর অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, এইচআইভি আক্রান্ত শিশুদের সবাই তার রোগী নয়।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি