[bangla_day],[english_date]


ব্যস্ত ঢাকা ঈদে ফাঁকা


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
03.06.2019

ডেস্ক রিপোর্ট : ঈদুল ফিতর উদযাপনে গত বৃহস্পতি-শুক্রবার থেকেই ব্যস্ত নগর ঢাকা ছাড়ছেন ঘরমুখী নানা শ্রেণি পেশার কর্মজীবি মানুষ। তবে রাজধানীজুড়ে ঈদের আমেজ শুরু হয়ে গেছে এর মধ্যেই। নগরের গুরুত্বপূর্ণ এলাকা বাদে প্রতিদিনের অসহনীয় যানজট কমে এসেছে। ছুটির হাওয়ায় ঢাকার বেশির ভাগ রাস্তা এখন ফাঁকা ।

ধারণা করা হয়, ঈদে অর্ধেকের বেশি বাসিন্দা ঢাকা ছাড়েন। পবিত্র শবেকদর উপলক্ষে গত রোববার ছিল সরকারি ছুটির দিন। এর আগে শুক্র ও শনিবার সাপ্তাহিক ছুটি থাকায় অনেক মানুষ আগেভাগেই ঢাকা ছেড়েছেন। গতকাল সকাল থেকে মতিঝিল, কাকরাইল ও আগারগাঁওয়ের অফিসপাড়াগুলো ছিল প্রায় জনশূন্য। মিরপুর, আসাদগেট, ধানমন্ডি ও মোহাম্মদপুর এলাকায় চেনা ব্যস্ততা আর যানজট চোখে পড়েনি। তবে গুলিস্তান, নিউমার্কেট, বসুন্ধরা সিটি, কারওয়ান বাজার ও ফার্মগেট এলাকার বিপণিবিতানগুলোতে লোকসমাগম ও যানবাহনের সংখ্যা ছিল চোখে পড়ার মতো।

রমজান মাসজুড়ে অসহনীয় যানজটের কথা স্মরণ করে গতকাল নগরের বিভিন্ন গন্তব্যে যাতায়াত করা কয়েকজন বলেন, গন্তব্যে পৌঁছাতে আগের চেয়ে কম সময় লাগছে।

আবার অনেককে পেশাগত কারণে ঢাকায় ঈদ করতে হচ্ছে। পরিবার-পরিজন ছাড়া ঈদ করার শূন্যতা থাকলেও ফাঁকা ঢাকা তাতে কিছুটা হলেও প্রলেপ দিচ্ছে বলে মন্তব্য করেন তারা।

নগরের বিভিন্ন সড়কে পথযাত্রীদের সাথে কথা বলে জানা যায়, ‘অন্য সময় যে পথ আসতে হালকা যানজট ও সিগন্যাল মিলিয়ে অন্তত ৪৫ বা ১ ঘন্টা সময় লাগে। আজ একবারের জন্যও সিগন্যাল পাইনি। যানজট তো ছিলই না।’

বিভিন্ন রুটে চলাচলকারী পরিবহনের চালকদের ধারণা মঙ্গলবারের মধ্যে ঢাকার সড়কগুলোতে যানজট একেবারেই থাকবে না।

এদিকে দুপুরের দিকে দক্ষিণখানের সোহেলী আনার কবির নিজ গাড়িতে করে এক অসুস্থ আত্মীয়কে পল্লবীর বাসায় পৌঁছে দেন মাত্র ২৫ মিনিটে। সেখান থেকে গুলশান ডিএনসিসি মার্কেটে কিছু কেনাকাটা করে বিকেলের মধ্যে বাসায় ফেরেন। সোহেলী বলেন, ‘আজকে আমি যে কাজ করেছি; স্বাভাবিক দিনে তা দুদিনে করতে হতো।’



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি