রবিবার,২২শে সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং
  • প্রচ্ছদ » কুমিল্লা নিউজ » কুমিল্লার বাগমারায় বাস-অটোরিক্সা ও সিএনজির ত্রিমুখী সংঘর্ষ, নিহত ৭ জনের মধ্যে একই পরিবারের ৬ জন


কুমিল্লার বাগমারায় বাস-অটোরিক্সা ও সিএনজির ত্রিমুখী সংঘর্ষ, নিহত ৭ জনের মধ্যে একই পরিবারের ৬ জন


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
১৮.০৮.২০১৯

 

ইমতিয়াজ আহমেদ জিতুঃ

কুমিল্লার লালমাই উপজেলার বাগমারা এলাকায় তিশা বাস-সিএনজি চালিত অটোরিক্সা ও মাইক্রেবাসের ত্রিমুখী সংঘর্ষে একই পরিবারের ৬ জনসহ মোট ৭ জন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আরো ২ জন।

রোববার (১৮ আগষ্ট) বেলা পৌণে ১২ টায় এ দুঘর্টনা ঘটে।

নিহতরা হলেন, কুমিল্লা নগরীর গোয়াল পট্টি এলাকার বন্দন ‘হোটেলের মালিক , কুমিল্লা নাঙ্গলকোট উপজেলার জোড্ডা পশ্চিম ইউনিয়নের ঘোড়া ময়দান গ্রামের জসিম উদ্দিন (৪৫), জসিমের স্ত্রী সেলিনা বেগম (৪০), জসিম উদ্দিনের শাশুড়ি সকিনা বেগম (৭০), জসিমের বড় ছেলে শিপন (১৭),দ্বিতীয় ছেলে হ্নদয় (১৫), মেয়ে নিপু আক্তার (১৩) ও সিএনজি চালক জামাল হোসেন (৩৫)। সিএনজি চালক জামাল হোসেন একই উপজেলার করপতি বেপারি বাড়ির মৃত. জিতু মিয়ার ছেলে।

আহত হয়েছেন জসিম উদ্দিনের ছোট ছেলে রিফাত ও অন্য যাত্রী একই গ্রামের শাইমুন হোসেন (১৫) । তাদেরকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়েছে। হতাহতরা সবাই সিএনজি চালিত অটোরিক্সার যাত্রী ছিল।

কুমিল্লার পদোন্নতিপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার ( জেলা দক্ষিণে অতিঃ পুলিশ সুপার হিসেবে কর্মরত) আব্দুল্লাহ আল মামুন এ বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, তিশা পরিবহনের বাস ঢাকা সায়দাবাদ থেকে ছেড়ে কুমিল্লার লাকসামে যাওয়ার পথে বাগমারা এলাকায় এসে বিপরীত দিক থেকে আসা কুমিল্লা মুখী সিএনজি চালিত অটোরিক্সার মুখোমুখি হয়। ওই সময় সিএনজি চালিত অটোরিক্সার পেছনে ছিল একটি মাইক্রোবাস। তখনি গতি নিয়ন্ত্রণ করতে না পেরে ত্রিমুখী সংঘর্ষ হয়। এ সংঘর্ষে ঘটনাস্থলে ৫ জনের মৃত্যু হয়। কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর আরো ২ জনের মৃত্যু হয়।

দুঘর্টনার পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন কুমিল্লা পুলিশ সৈয়দ নুরুল ইসলাম, বিপিএম (বার) ও কুমিল্লার পদোন্নতিপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার ( জেলা দক্ষিণে অতিঃ পুলিশ সুপার হিসেবে কর্মরত) আব্দুল্লাহ আল মামুনসহ অন্যান্য কর্মকর্তারা।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি