সোমবার,১৬ই সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং
  • প্রচ্ছদ » কুমিল্লা নিউজ » কুমিল্লার রানীর বাজারে মেয়াদোত্তীর্ণ ইনজেকশন বিক্রি করায় ৫০,০০০ টাকা জরিমানা, অভিযােগকারী পেলো নগদ ১২,৫০০ টাকা


কুমিল্লার রানীর বাজারে মেয়াদোত্তীর্ণ ইনজেকশন বিক্রি করায় ৫০,০০০ টাকা জরিমানা, অভিযােগকারী পেলো নগদ ১২,৫০০ টাকা


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
০৩.০৯.২০১৯

ডেস্ক রিপাের্টঃ

আজ মঙ্গলবার (৩সেপ্টেম্বর) জাতীয় ভােক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর, কুমিল্লা জেলা কার্যালয়ে দায়েরকৃত দুটি অভিযােগ নিষ্পত্তি করা হয়েছে। প্রমাণিত না হওয়ায় আরও তিনটি অভিযােগ খারিজ করা হয়।

জনাব সাইদুল ইসলাম নামের একজন ভােক্তা গত ২৯ আগষ্ট রানীর বাজার এলাকার ইকোনমিক  ড্রাগ হাউজ থেকে একটি ইনজেকশন ক্রয় করেন। বাড়িতে ফিরে ইনজেকশন পুশ করার সময় দেখেন তার মেয়াদ অক্টোবর, ২০১৮ তে শেষ হয়েছে। ফলে তিনি গত ২ সেপ্টেম্বর  এ দপ্তরে লিখিত অভিযােগ করেন ভােক্তা আইনে প্রতিকার চান। আজ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মাে: আছাদুল ইসলামের নেতৃত্বে পরিচালিত অভিযানে এ অভিযােগের সত্যতা মিললে অধিদপ্তরের  প্রশাসনিক ব্যবস্থায় ভােক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনের ৫১ ধারায় ৫০,০০০ টাকা জরিমানা করা হয়। অভিযােগকারী জনাব সাইদুল ইসলাম আইনের ৭৬(৪) ধারার বিধান বলে নগদ ১২,৫০০ টাকা পান। কুমিল্লার সুযােগ্য জেলা প্রশাসক জনাব মাে: আবুল ফজল মীর অভিযােগকারীর হাতে এ অর্থ তুলে দেন।

অন্যদিকে জনাব মিনহাজ উদ্দিন আহমেদ নামের একজন ভােক্তা গত মাসে অভিযােগ করেন যে, রানীর বাজার এলাকার আরএফএল বেস্ট বাই তে ৫০ টাকার ট্যাগ লাগানাে মেলামাইনের প্লেট তার কাছ থেকে রাখা হয় ৬৫ টাকা করে। আজ তদন্তে সত্যতা মিললে অভিযুক্ত শাে রুম কে ভােক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনের ৪০ ধারায় ১০,০০০ টাকা জরিমানা করা হয়। অভিযােগকারী জনাব মিনহাজ পান ২,৫০০ টাকা।

এছাড়াও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে খাবার উৎপাদন ও সংরক্ষণের অভিযােগে রানীর বাজার এলাকার সাকিব হােটেল এন্ড । রেস্টুরেন্টকে ৪৩ ধারায় ৩,০০০ টাকা জরিমানা করা হয়। সহকারী পরিচালক মাে: আছাদুল ইসলামের নেতৃত্বে পরিচালিত এ অভিযানে জেলা স্যানিটারি ইন্সপেক্টর অমলেন্দু ভাণ্ডারী, রানীর বাজার ব্যবসায়ী সমিতির নেতৃবৃন্দ ও জেলা পুলিশের একটি টিম সার্বিক সহযােগিতা করেন।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি