বুধবার,২৩শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং
  • প্রচ্ছদ » শিক্ষা » প্রত্যন্ত অঞ্চলে শিক্ষার আলো ছড়ানোর উদ্দেশ্যে “শিদলাই শাহজালাল মোল্লা কারিগরি স্কুল এন্ড কলেজ” গড়ি


প্রত্যন্ত অঞ্চলে শিক্ষার আলো ছড়ানোর উদ্দেশ্যে “শিদলাই শাহজালাল মোল্লা কারিগরি স্কুল এন্ড কলেজ” গড়ি


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
২৭.০৯.২০১৯

স্টাফ রিপোর্টারঃ

কুমিল্লা জেলার ব্রাহ্মণপাড়া থানায় অবস্থিত শিদলাই গ্রামটি একটি ঐতিহ্যবাহী গ্রাম। এই গ্রামের শ্যামল ছায়ায় পল্লী জননী জমিদার পত্মী ভূবন মোহিনীর কোল আলো করে ইংরেজী ১৯৬৩ সালে জন্মগ্রহণ করেন শাহজালাল মোল্লা। ছোটবেলা থেকেই শিক্ষার প্রতি ছিল তার অদম্য ভালবাসা।

তিনি জানতেন শিক্ষা ছাড়া কোন জাতি উন্নতি লাভ করতে পারে না। তাই  শিক্ষানুরাগী এই মহান ব্যক্তিত্ব দেশের কল্যাণে  শিল্প কারখানা গড়ে তোলার পাশাপাশি তরুণ প্রজন্মকে সুশিক্ষায় শিক্ষিত করার লক্ষ্যে নিজ জন্মভূমি শিদলাই প্রত্যন্ত গ্রাম অঞ্চলের শিক্ষার্থীদের কারিগরি শিক্ষা বিস্তারে জন্য গড়ে তুলছেন “শিদলাই শাহজালাল মোল্লা কারিগরি স্কুল এন্ড কলেজ”।

বর্তমান সরকার ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার প্রত্যয় ব্যাক্ত করেছে এবং জাতি সেই স্বপ্ন দেখছে ডিজিটাল বাংলাদেশ তৈরি করতে হলে তথ্য প্রযুক্তি জ্ঞান আমাদের সমৃদ্ধ হতে হবে শুধু বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের তথ্য প্রযুক্তি জ্ঞান নয় মাঠ পর্যায়ের জ্ঞানও আমাদের আহরণ করতে হবে । সুতরাং ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্সগুলো ছাড়াও ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং কোর্সগুলোতে আমাদের ছাত্ররা আমাদের তরুণেরা যদি জ্ঞানলাভ করে তাহলে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল পর্যন্ত তথ্য প্রযুক্তির সুফল ছড়িয়ে দেওয়ার সুযোগ হবে । কারিগরি জ্ঞান লাভ করে ডিজিটাল বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার জন্য তরুণ প্রজন্মকে আহ্বান জানান তিনি।

নিজ জন্মস্থান শিদলাই ও আশে পাশের এলাকার মানুষের উন্নয়ন ও শিক্ষার জন্য তার চেষ্টার কোন কমতি রাখেননি । তাই এই অনুন্নত অঞ্চলের অশিক্ষিত মানুষের মাঝে শিক্ষার আলো ছড়িয়ে দেওয়ার লক্ষ্যে নিজ গ্রামে তার নামে প্রতিষ্ঠিত করেছেন “শিদলাই শাহজালাল মোল্লা কারিগরি স্কুল এন্ড কলেজ”।

তিনি আরো জানান, দেশ ও জাতি গঠনে শিক্ষায় আলোকিত মানুষের বিকল্প নেই। আলোকিত মানুষই পারে জাতীয় উন্নয়নে সর্বশেষ অবদান রাখবে। যথার্থ শিক্ষা বিস্তার ও ব্যক্তিত্ব গঠনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ভূমিকা অপরিহার্য। প্রযুক্তির এই যুগে জনসম্পদকে কারিগরি শিক্ষায় উদ্ভাসিত করে দক্ষ মানব শক্তিকে সম্পদে রূপান্তরিত করার কোন বিকল্প নেই। বিশ্বব্যাপী কারিগরি শিক্ষার ক্ষেত্রে কর্মসংস্থানের ব্যাপক চাহিদার প্রেক্ষিতে কারিগরি শিক্ষার সম্প্রসারণ আবশ্যক। বর্তমান যুগ বিজ্ঞান ও তথ্য প্রযুক্তির যুগ। আধুনিক বিশ্বের সকল ক্ষেত্রে বিজ্ঞান ও তথ্য প্রযুক্তি পালন করছে জাদুর কাঠির মত বিস্ময়কর ভূমিকা । শিক্ষার ক্ষেত্রে বিজ্ঞান, তথ্য প্রযুক্তি ও কারিগরি শিক্ষার ফল ইতোমধ্যেই বিশ্বব্যাপী বিরাট আলোড়নের সৃষ্টি করেছে। তাই কারিগরি শিক্ষার কোন বিকল্প নেই। বাংলাদেশে কারিগরি শিক্ষা বিস্তারের জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার যে চিন্তা ভাবনা কারিগরি ও বৃত্তি মূলক শিক্ষার মাধ্যমে বাংলাদেশের অদক্ষ মানব শক্তিকে দক্ষ জনশক্তিতে পরিনত করে সুন্দর ও সমৃদ্ধশালী জাতি তৈরিতে আমরা দৃঢ় সংকল্প বদ্ধ থাকবো।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি