বুধবার,২৩শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং
  • প্রচ্ছদ » জাতীয় » ট্রেনের ১২০ আসন বরাদ্দ নিলেন ছাত্রলীগের নেতা পরিচয়ে


ট্রেনের ১২০ আসন বরাদ্দ নিলেন ছাত্রলীগের নেতা পরিচয়ে


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
০৫.১০.২০১৯


ডেস্ক রিপোর্টঃ
নগর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি পরিচয় দিয়ে সুবর্ণ এক্সপ্রেসের ৬০টি প্রথম শ্রেণি ও ৬০টি দ্বিতীয় শ্রেণির আসন বরাদ্দ দিয়ে ট্রেন ভ্রমণ করার অভিযোগ উঠেছে মো. সোহেল নামে একজনের বিরুদ্ধে। তবে নগর ছাত্রলীগের দাবি, তিনি ছাত্রলীগের কেউ নন, তিনি একজন প্রতারক।

নগর ছাত্রলীগের সভাপতি ইমরান আহম্মেদ ইমু বলেন, সোহেল নামে নগর ছাত্রলীগে কোনো নেতা নেই। ছাত্রলীগের নাম ভাঙিয়ে সোহেল নামে ওই প্রতারক রেলওয়ে থেকে অনৈতিক সুবিধা আদায় করেছে।

রেলওয়ের সূত্র জানায়, নগর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি পরিচয় দিয়ে মো. সোহেল নামে একজন গত ১২ সেপ্টেম্বর সুবর্ণ এক্সপ্রেসের ১২০টি আসন বরাদ্দের জন্য আবেদন করেন। ১৯ সেপ্টেম্বর ৭০১ নম্বর সুবর্ণ এক্সপ্রেসের চট্টগ্রাম থেকে ঢাকার দ্বিতীয় শ্রেণির ৬০টি ও ২০ সেপ্টেম্বর ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম ১ম শ্রেণির ৬০টি আসনের জন্য আবেদন করেন তিনি।

তার আবেদন গ্রহণ করে ওই দুইদিন দু’টি অতিরিক্ত কোচ সংযোজন করার জন্য রেল দফতরে আবেদনপত্রটি পাঠান রেলওয়ের পূর্বাঞ্চলের অ্যাসিস্ট্যান্ট চিফ কমার্শিয়াল ম্যানেজার স্নেহাশীষ দাশ গুপ্ত। ১৯ ও ২০ সেপ্টেম্বর সোহেল ভ্রমণ সুবিধা ভোগ করেন।

রেলওয়ের একজন কর্মকর্তা বলেন, সাধারণত কোনো রাজনৈতিক সংগঠনের নেতা আসন বরাদ্দের জন্য আবেদন করলে বিষয়টি ওই সংগঠনের প্রধানের নিকট থেকে যাছাই-বাছাই করা হয়। কিন্তু স্নেহাশীষ দাশ গুপ্ত বিষয়টি যাছাই-বাছাই না করে সোহেল নামে ওই প্রতারককে সিট বরাদ্দ দেন।

নগর ছাত্রলীগের (ভারপ্রাপ্ত) সাধারণ সম্পাদক জাকারিয়া দস্তগীর বলেন, সোহেল নামে ওই প্রতারককে আসন বরাদ্দ দেওয়ার বিষয়ে রেলওয়ের কোনো কর্মকর্তা আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেননি।

স্নেহাশীষ দাশ গুপ্ত রেলওয়ের পূর্বাঞ্চল থেকে বর্তমানে বদলি হয়ে গেছেন। এ বিষয়ে জানতে তার মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে সাড়া পাওয়া যায়নি।

রেলওয়ের পূর্বাঞ্চলের বিভাগীয় বাণিজ্যিক কর্মকর্তা আনসার আলী বলেন, যাছাই-বাছাই করার দায়িত্ব যিনি চাহিদাপত্রের আবেদন গ্রহণ করেন তার। আমরা শুধু চাহিদাপত্রের আলোকে অনুমোদন দিয়ে থাকি। তবে এ রকম ঘটনা যাতে আর না ঘটে সেজন্য দফতরের সবাইকে সতর্ক করা হয়েছে।

সূত্রঃ বাংলানিউজ



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি