বুধবার,২৩শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং


নৌকা বাইচ উৎসবের আমেজ ফিরিয়ে আনলো গোমতির পাড়ে


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
০৫.১০.২০১৯

স্টাফ রিপোর্টারঃ
আবহমান গ্রাম বাংলার লোকজ ক্রীড়ার ঐতিহ্যবাহী নৌকাবাইচ যখন হারিয়ে যাওয়ার পথে ঠিক তখনই কুমিল্লা জেলা প্রশাসনের সহায়তায় মেঘনা-গোমতী নদীতে হয়ে গেল নৌকাবাইচ প্রতিযোগিতা। প্রচার-প্রচারণার কোন কমতি ছিলনা। মাইকিং, ব্যানার, ফেস্টুন, পোস্টারিং, এর মাধ্যমে সপ্তাহব্যাপি ছিলো প্রচার প্রচারণা। শনিবার বিকালে জেলার দাউদকান্দি মেঘনা উপজেলার একটি করে এবং ব্রাম্মনবাড়িয়া, কিশোরগঞ্জ, নরসিংদি ও টাঙ্গাইল থেকে থেকে মোট ১২টি দল তাদের সুসজ্জিত নৌকা আর রংবে-রঙ্গের বাহারি পোশাক পড়ে এই প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়। বাদ্যযন্ত্রের তালে তালে মাঝিদের ভাটিয়ালী গান আর পানিতে বৈঠার ফেলার ছপ ছপ শব্দ যেন একাকার হয়ে গিয়েছিল গোমতী নদী। উৎসব আমেজে নৌকা বাইচ দেখতে গোমতী পাড়ে ভীড় জমায় কুমিল্লাসহ পাশের চাঁদপুর, মুন্সিগঞ্জ, নারায়নগঞ্জ জেলার নারী-পুরুষ শিশু বৃদ্ধসহ সর্বস্তরের লোকজন। নীরব নিস্তব্ধ গোমতী হয়ে উঠে হাজার হাজার মানুষের কোলাহলে মুখরিত।

এমনই একটি আয়োজনে উৎসবে মেতে উঠেছিল কুমিল্লার দাউদকান্দি মেঘনা উপজেলা ও এর আশপাশ এলাকার হাজার হাজার মানুষ। কেউ কেউ ইঞ্জিনচালিত ছোট নৌকা ভাড়া করে পরিবার পরিজন নিয়ে নদীর বিভিন্ন স্থানে অবস্থান নেয়। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে পর্যাপ্ত পরিমান পুলিশ দায়িত্ব পালন করতে দেখা গেছে। সে সঙ্গে নৌ-পুলিশ, মেডিকেল টিম এবং ফায়ার সার্ভিসের টিম প্রতিযোগিতার নিরাপত্তার দায়িত্ব পালন করছে। সন্ধ্যার ঠিক পূর্ব মুহুর্তে শেষ হয় নৌকা বাইচ প্রতিযোগিতা।

দাউদকান্দি উপজেলা প্রশাসনের সার্বিক সহযোগিতায় বিকেল চারটায় এ প্রতিযোগিতার উদ্ভোধন করেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার আব্দুল মান্নান। মেঘনা উপজেলার কাঠালিয়া থেকে প্রায় তিন কিলোমিটার দূরত্বে মেঘনা-গোমতী সেতু এলাকায় গিয়ে শেষ হয় নৌকা বাইচ। জেলা প্রশাসন আয়োজিত এই প্রতিযোগিতায় প্রথমস্থান অধিকারী বি-বাড়িয়া জেলার সরাইল উপজেলার ওসমান উল্লাহর হাতে একলাখ টাকা পুরস্কার তুলেদেন প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অর্থ মন্ত্রী আ.হ.ম মোস্তফা কামাল। একই জেলার বিজয়নগর উপজেলার ফুল ইসলাম মেম্বার ও শাহ আলম মাষ্টার দ্বিতীয় ও তৃতীয়স্থান অর্জন করেন।

জেলা প্রশাসক আবুল ফজল মীর এর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন, আ’লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য সাবেক আইনমন্ত্রী আব্দুল মতিন খসরু এমপি, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি মেজর জেনারেল(অবঃ) সুবিদ আলী ভূইয়া এমপি, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আবু তাহের, পুলিশ সুপার নুরুল ইসলাম। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন দাউদকান্দি উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মেজর(অবঃ) মোহাম্মদ আলী সুমন, মেঘনা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সাইফুল্লাহ মিয়া রতন শিকদার, মেয়র নাইম ইউসুফ সেইন, কুমিল্লা উত্তর জেলা আ’লীগের সভাপতি আব্দুল আওয়াল সরকার, দপ্তর সম্পাদক আবুল হাসেম সরকার, প্যানেল মেয়র রকিব উদ্দিন রকিব প্রমূখ।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি