বুধবার,২৩শে অক্টোবর, ২০১৯ ইং


ইরাকের রাজধানী বাগদাদে ৭টি টেলিভিশন স্টেশনে সন্ত্রাসী হামলা


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
০৭.১০.২০১৯

ডেস্ক রিপোর্টঃ

শনিবার ইরাকের রাজধানী বাগদাদের বেশ কয়েকটি টেলিভিশন স্টেশনে হামলা চালিয়েছে সন্ত্রাসীরা। টেলিভিশন চ্যানেলে হামলাকারী সন্ত্রাসীরা সবাই মুখোশ পরিহিত ছিল বলে তাদের শনাক্ত করা সম্ভব হয়নি। এমনটাই জানানো হয়েছে রাশিয়া টুডের এক প্রতিবেদনে।

হামলাকারীদের সবাই মুখোশ পরিহিত বন্দুকধারী ছিল বলে তাদের শনাক্ত করা সম্ভব হয়নি।

রাশিয়া টুডের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, শনিবার বাগদাদের প্রথম সারির কয়েকটি টেলিভিশন চ্যানেলে হামলা করেছে মুখোশ পরিহিত বন্দুকধারীরা।

আক্রান্ত এসব টিভি চ্যানেলগুলো হলো- দিজলা, এনআরটি, আরাবিয়া হাদাথ, ফালুজা, আলগাদ আল আরাবি, আল শারকিয়া এবং স্কাই নিউজ আরাবিয়া।

তবে এসব হামলায় কতজন হতাহত হয়েছে তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি।
ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে একই রকম তথ্য দিয়েছে বাগদাদে অবস্থিত সৌদি মালিকানাধীন আল আরাবিয়া টেলিভিশন স্টেশন।

তাদের কার্যালয়েও হামলা করা হয়েছে জানিয়ে আল আরাবিয়া টেলিভিশন চ্যানেলের এক সংবাদদাতা বলেন, শনিবার হঠাৎই কয়েকজন মুখোশধারী আগ্নেয়াস্ত্রসহ আমাদের বাগদাদের অফিসে ঢুকে পড়ে ভাঙচুর করে এবং গুলি চালায়। ওই বন্দুকধারীদের গুলিতে আমাদের বেশ কয়েকজন সহকর্মী আহত হয়েছেন।

তিনি আরও বলেন, বন্দুকধারীরা কালো পোশাক পরা ছিল। তারা চ্যানেলের ভেতরের বিভিন্ন জিনিসপত্র এবং মোবাইল ফোন ধ্বংস করে দেয়। হামলার সময় নিরাপত্তা চাওয়া হলে পুলিশ কোনো ধরনের সহায়তা দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

পুলিশ বাহিনীর ওপর অভিযোগ এনে ওই সাংবাদিক আরও বলেন, হামলার সময় মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করে পুলিশের কাছে নিরাপত্তা চেয়েছিলাম আমরা। কিন্তু ফেডারেল পুলিশের সদস্যরা হামলার সময় আমাদের কোনো ধরনের সহায়তা দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন।

তবে হামলার ঘটনা তদন্তে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় এবং কর্মকর্তারা আমাদের নিশ্চয়তা দিয়েছেন।

বেকারত্ব, অদক্ষতা ও দুর্নীতির বিস্তার নিয়ে প্রতিবাদে ইরাকে চলছে সরকারবিরোধী বিক্ষোভ। বেশ কয়েক দিন ধরে চলা এ বিক্ষোভ সহিংসতায় রূপ নিলে এখন পর্যন্ত প্রায় ১০০ মানুষ প্রাণ হারিয়েছেন এবং কয়েক হাজার মানুষ আহত হয়েছেন।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি