বৃহস্পতিবার,১৪ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং


চান্দিনা পৌর আ’লীগের সভাপতি একসময় ফ্রিডম পার্টির নেতা ছিলেন


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
০৫.১১.২০১৯

 

ডেস্ক রিপোর্টঃ

আব্দুল জলিল ফ্রিডম পার্টির সাংগঠনিক সম্পাদক ছিল। বঙ্গবন্ধুর আদর্শবিরোধী ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বিরোধী জলিল এখন পৌর আওয়ামীলীগের চালকের আসনেও বসেছেন। সে আগের কমিটির সহ সভাপতি ছিল।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর আত্মস্বীকৃত খুনি ও ফ্রিডম পার্টির কর্ণধার কর্নেল (অব.) খন্দকার আবদুর রশিদের বাড়ি চান্দিনায় হওয়ার সুবাদে একসময় এ উপজেলা ছিল ফ্রিডম পার্টির ঘাঁটি।

আওয়ামী লীগের নীতিনির্ধারণী সূত্রে জানা যায়, চলমান শুদ্ধি অভিযানে প্রায় ৫ হাজার অনুপ্রবেশকারী ও বিতর্কিত নেতার সন্ধান পেয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার মাধ্যমে কেন্দ্র থেকে তৃণমূলের এসব নেতার তালিকা প্রস্তুত করেছেন দলটির সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তালিকাটি ইতিমধ্যে তিনি দলীয় নেতাদের কাছে হস্তান্তর করেছেন। আট বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা তালিকা ধরে ধরে তৃণমূল সম্মেলনের কাজে অংশ নেবেন। জেলা নেতাদের কাছেও একটি তালিকা পাঠাবে আওয়ামী লীগ। চূড়ান্ত তালিকায় থাকা অনুপ্রবেশকারী ও বিতর্কিতদের সম্মেলনের মাধ্যমে পদ-পদবি থেকে বাদ দেয়া হবে। পাশাপাশি কেন্দ্রীয় ও স্থানীয় সম্মেলনে তাদের অংশগ্রহণ নিষিদ্ধ থাকবে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, চান্দিনা পৌরসভার ছায়কট গ্রামের অধিবাসী আবদুল জলিলের রাজনৈতিক উত্থান বঙ্গবন্ধুর খুনি কর্নেল রশিদের হাত ধরে। অনেকের মতো তাকে ও কর্নেল রশিদ লিবিয়া নিয়ে গিয়েছিল ট্রেনিং দেয়ার জন্য। ৯৬ সালের জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ফ্রীডম পার্টির চান্দিনা ও বরুড়া এই দুই থানার কো অর্ডিনেটরের দায়িত্ব পালন করে এই জলিল। ফ্রীডম পার্টির এক সময়ের এই দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী ১৯৯৮ সালে পৌরসভার কাউন্সিলর নির্বাচিত হয় ফ্রীডম পার্টি থেকে। কাউন্সিলর নির্বাচিত হবার পর থেকে সে দল বদলে নামে মাত্র আওয়ামী লীগের রাজনৈতি শুরু করে।

২ নভেম্বর অনুষ্ঠিত চান্দিনা পৌর আওয়ামীলীগের সম্মেলনে সভাপতি নির্বাচিত হয়েছে। এ নিয়ে চান্দিনা আওয়ামীলীগের রাজনৈতিক মহলে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা দিয়েছে।

অনেকে বলছে দলীয় সভানেত্রীর অনুপ্রবেশকারীদের ব্যাপারে কঠোর নির্দেশনা থাকার পরও কেন এমন বিতর্কিত কমিটি হয়েছে তা বোধগম্য না।

সম্মলনে উপস্থিত ছিলেন চান্দিনার সংসদ সদস্য অধ্যাপক আলী আশরাফ এমপি, কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামীলীগের সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সদস্য সচিব হুমায়ুন মাহমুদ, চান্দিনা উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান তপন বক্সী সহ আরও অনেকে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি