রবিবার,৮ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং
  • প্রচ্ছদ » খেলা » নির্বাচনের কেন্দ্রে এজেন্ট হিসেবে দায়িত্ব থাকায় খেলতে পারবেন না আইতর ফার্নান্দেজ!


নির্বাচনের কেন্দ্রে এজেন্ট হিসেবে দায়িত্ব থাকায় খেলতে পারবেন না আইতর ফার্নান্দেজ!


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
০৯.১১.২০১৯

ডেস্ক রিপাের্টঃ

ভদ্রলোক খেলেন স্প্যানিশ লা লিগার ক্লাব লেভান্তের হয়ে। তবে আইতর ফার্নান্দেজের কিন্তু এটাই একমাত্র পরিচয় নয়। গোললেভান্তের পোস্ট সামলানো ছাড়াও পোলিং এজেন্টের কাজ করে থাকেন তিনি। আগামী রোববার অ্যাথলেটিক বিলবাওয়ের বিপক্ষে লিগ ম্যাচে মাঠে নামবে লেভান্তে। একই দিনে স্পেনের সংসদীয় নির্বাচনও হতে যাচ্ছে। নির্বাচনের এক কেন্দ্রে এজেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করার জন্য ডাক পড়েছে আইতরের। গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে নিজেদের মূল গোলরক্ষককে কীভাবে খেলাতে পারবে, এ নিয়ে চিন্তায় পড়েছে লা লিগার ক্লাবটি।

নিজের এলাকা মনদ্রাগনে নির্বাচনী এজেন্ট হিসেবে সেদিন কাজ করতে হবে আইতরকে। মূল এজেন্ট নয়, যদি অতিরিক্ত কোনো এজেন্ট লাগে, সে অতিরিক্ত এজেন্টের তালিকায় আছে আইতরের নাম। অর্থাৎ প্রয়োজন না পড়লে কাজ করতে হচ্ছে না আইতরকে। তাই বলে ওই সময়ে যে অন্য কাজ করবেন, সেটাও পারবেন না। সরকারি দায়িত্ব বলে কথা! আর এ নিয়েই চিন্তায় পড়েছে লেভান্তে।

এর মধ্যেই আইতরকে দায়িত্ব থেকে মুক্তি দেওয়ার জন্য স্থানীয় নির্বাচনী কমিশনের কাছে আবেদন করেছে লেভান্তে। লাভ হয়নি। এমন পরিস্থিতিতে স্পেনের আইন অনুযায়ী দুবার আবেদন করা যায়। তাই আরেকবার সুযোগ পাচ্ছে লেভান্তে। শেষ সুযোগে নিজেদের পক্ষে কাজে লাগবে এমন বিশেষ একটা তথ্য জোগাড় করেছে তারা। ২০১৫ সালের নির্বাচনের সময়ে এমনই এক সমস্যায় পড়েছিলেন অ্যাথলেটিক বিলবাওয়ের স্প্যানিশ স্ট্রাইকার ইনাকি উইলিয়ামস। তখন উইলিয়ামসকে পোলিং এজেন্টের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছিল। দ্বিতীয়বার আবেদন করার সময় নির্বাচন কমিশনকে সে কথা বলবে লেভান্তে।

আগামী রোববার স্পেনের সংসদ নির্বাচন। নির্বাচনের জন্য বেশ যন্ত্রণাতেই পড়তে যাচ্ছে লা লিগার ক্লাব লেভান্তে

চার বছর আগে ইনাকি উইলিয়ামসরা সে ম্যাচটা খেলেছিলেন আবার এই লেভান্তের বিপক্ষেই। ২-০ গোলে জিতেছিলেন তারা, স্ট্রাইকার উইলিয়ামস নিজেও একটা গোল করেছিলেন। চার বছর পর সেই দুই দলের মধ্যকার আরেকটি ম্যাচের সামনে ওই একই সমস্যা আবির্ভূত হয়েছে। এবার সমস্যায় বিলবাও নয়, বরং লেভান্তের খেলোয়াড়।

আইতর অবশ্য নিজে বেশ আশাবাদী, দলের হয়ে ম্যাচটা খেলতে পারবেন তিনি, ‘আমার পুরো মনোযোগ ম্যাচ ঘিরে। আমি জানি ম্যাচটা খেলতে পারব। ক্লাব চেষ্টা করে যাচ্ছে যাতে আমি ম্যাচটা খেলতে পারি। আমি আশা করছি তারা সফল হবে।’

অবশ্য আইতরের আশাবাদী হওয়ার কারণও আছে। আইতরের ক্লাব সতীর্থ হোর্হে মিরামনও একই সমস্যায় পড়েছিলেন। নিজের শহর জারাগোজার এক কেন্দ্রে এজেন্ট হিসেবে কাজ করার কথা ছিল তাঁর। কিন্তু লেভান্তের আবেদনের প্রেক্ষিতে সে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে মিরামনকে। একই ভাবে আইতরের ভাগ্যও সুপ্রসন্ন হবে, ভাবছেন তিনি। লেভান্তের আরেক গোলরক্ষক ওইয়ের ওলাজাবাল চোটে পড়েছেন, ফলে আইতরকে না পেলে কোনো সিনিয়র গোলরক্ষক ছাড়াই বিলবাওয়ের মাঠে খেলতে যেতে হবে তাদের। এটাও আরও সমস্যার সৃষ্টি করেছে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি