রবিবার,৮ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং


চৌদ্দগ্রামে লোকালয়ে ইটের ভাটার কারণে নানা সমস্যায় হাজারো জনসাধারণ


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
১৩.১১.২০১৯

 

 

 

 

 

ডেস্ক রিপোর্টঃ

কুমিল্লা জেলার চৌদ্দগ্রাম থানার অন্তর্গত আমানগন্ডা একটি জনবহুল গ্রাম। এই গ্রামের প্রাণকেন্দ্রে ২০১১ সালে গ্রামবাসীর সকল ধরনের বাধা বিপত্তিকে অগ্রাহ্য করে গড়ে উঠে বেলাল ব্রিকস ম্যানুফেকচারার নামক একটি ইটের ভাটা। শুরু থেকেই এই ইটের ভাটাটি ছিল গ্রামের জন্য হুমকিস্বরুপ। কেননা, এর অবস্থান এমন একটি স্থানে যা গ্রামীণ পরিবেশের জন্য খুবই ক্ষতিকর। সম্প্রতি ইটের ভাটা টি বড় পরিসরে ছড়িয়ে যাচ্ছে বিশাল এলাকাজুড়ে। ফলে ভাটার বিষাক্ত কালো ধোঁয়ায় একদিকে যেমন জনজীবন বিপর্যস্ত হচ্ছে অন্যদিকে গাছপালাসহ সকল ধরনের ফসল উৎপাদন ব্যহত হচ্ছে উল্ল্যেখযোগ্যহারে। আবাদি জমি পরিণত হচ্ছে ইট আর কয়লার স্তুপে। ইদানিং অত্যাধিক বায়ুদূষণের ফলে আশেপাশের জনগণ হাঁপানি, শ্বাসকষ্ট সহ বিভিন্ন ধরনের জটিল রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। বিশেষ করে, স্কুলগামী শিক্ষার্থীদের স্কুলে আসা যাওয়ার ক্ষেত্রে ধূলার সাগরে সাঁতার কাটতে হয়। শুকনো মৌসুমে পুরো গ্রামটিই যেন ধূলা আর ধোঁয়ার আধারে পরিণত হয় নষ্ট হচ্ছে গ্রমীণ সরক গুলো। এক্ষেত্রে এলাকাবাসী লিখিত অভিযোগ দিলেও কাজ হয়নি। পরবর্তীতে জনগণের চাপে ব্রিকসের স্বত্বাধিকারী ১ বছরের মধ্যে ইটের ভাটা অন্যত্র সরিয়ে নিবেন বলে লিখিত অঙ্গীকার করেন। কিন্তু অঙ্গীকারে উল্লেখিত সময় শেষ হয়ে অতিরিক্ত এক বছর অতিবাহিত হলেও তিনি তা সরিয়ে নেননি। বরং চলতি বছরে ইট তৈরীর জন্য সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছেন। এমতাবস্থায় স্বার্থান্বেষী পরিবেশ ধ্বংসকারীদের নিকট আমানগন্ডা গ্রামের সাধারণ মানুষ অসহায়। তাই সরকারের যথাযথ কর্পতৃক্ষ যদি ব্রিকসটি লোকালয় থেকে উচ্ছেদ করে অন্যত্র সরে যেতে বাধ্য করেন তাহলে জনজীবনে স্বাভাবিক অবস্থা বিরাজ করবে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি