রবিবার,২৫শে অক্টোবর, ২০২০ ইং


রাজশাহীতে ৮ বছরের শিশুর ও তার বাবার বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
২৩.০৯.২০২০

ডেস্ক রিপোর্টঃ

রাজশাহীর শ্রম আদালতে আট বছরের শিশুর নামে মামলা দায়ের করা হয়েছে। রাজশাহীর শ্রম আদালতে এই মামলা করে কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদফতরের পরিদর্শক। রাজশাহীর নওহাটা বাজারে শুক্রবার দোকান খোলার অপরাধে একইসঙ্গে ছেলে ও বাবার নামে এই মামলা হয়েছে।

বর্তমানে শিশু ও শিশুটির বাবা আদালতে হাজির হয়ে জামিনে আছেন। শিশুটির নাম জোবায়ের। বাবার নাম জনাব আলী। তাদের রাজশাহীর পবার নওহাটা বাজারে একটি জুতার দোকান আছে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, গত ২৪ মার্চ সন্ধ্যায় পবা উপজেলার নওহাটা বাজারে দোকানের মালিক জনাব আলীর কাছে রাজশাহীর শ্রম আদালতের দুটি সমন আসে। সেখানে বাবা-ছেলের বিরুদ্ধে বাংলাদেশ শ্রম আইন, ২০০৬-এর ৩০৭ ধারার অপরাধ করার অভিযোগ আনা হয়। পরে আইনজীবীর মাধ্যমে জনাব আলী জানতে পারেন যেকোনো এক শুক্রবারে তার দোকান খোলা ছিল, সেই অপরাধেই গত ১১ ফ্রেরুয়ারি হয়েছে মামলা। আর দোকানের সাইনবোর্ডে ছেলের ছবি ও নাম থাকায় আসামি হয়েছে সেও।

শিশুটির বাবা জনাব আলী বলেন, ‘দোকান খোলার অপরাধে মামলা হলে আমার নামে হবে। কারণ অপরাধ আমার। আমার দোষ আমি স্বীকার করছি। শিশুটির নামে কেন এই মামলা হবে?’

মার্কেটের অন্যান্য ব্যবসায়ী ও দোকান মালিকদের অভিযোগ, মাঠ পর্যায়ে না গিয়েই এমন ভুলভাল রিপোর্ট তৈরি করেন কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদফতরের পরিদর্শক। নওহাটা বাজারেও ৯৩০টি দোকানের মধ্যে ২০ থেকে ২৫টির নামে মামলা হয়েছে। তারা এসে বলে টাকা না দিলে মামলা হবে।

এদিকে শ্রম আদালতের আইনজীবী এস আলম জানান, যেহেতু শিশু জোবায়ের দোকানের মালিক বা পরিচালক কোনটিই নয়, তাই শুধু সাইনবোর্ডে ছবি ও নাম থাকায় তার বিরুদ্ধে মামলা হতেই পারে না।

এ ব্যাপার কারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদফতরের রাজশাহীর উপ-মহাপরিদর্শক মাহফুজুর রহমান ভুইয়া বলছেন, এটি সংশ্লিষ্ট পরিদর্শকের ভুল। তাই শিশুটির মামলা প্রত্যাহরের বিষয়ে তারা আন্তরিক।

তিনি বলেন, ‘শিশুটির পরিবার যদি আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করতো তাহলে এ ধরনের ঘটনা ঘটতো না। কিংবা ঘটার পরও যদি যোগাযোগ করতো তাহলে আরজি পরিবর্তন করে শিশুটির নাম বাদ দেওয়া যেত। এখন আমরা আরজি থেকে শিশুটির নাম বাদ দিয়ে দেব।’

রাজশাহীর জজকোর্টের আইনজীবী দিল সেতারা চুনি জানান, ১১ বছরের আগে কোনো শিশুর নামে মামলা হওয়ার কোনো আইন নেই। শ্রম আইন অনুযায়ীও ১১ বছরের নিচে কোনো শিশু অপরাধ করলেও তার নামে মামলা হওয়ার সুযোগ নেই। সেখানে এই মামলা হওয়াটা কোনোভাবেই ঠিক হয়নি।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি