বুধবার,২১শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ


রিয়ালকে বিদায় করে ফাইনালে ম্যানসিটি


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
১৮.০৫.২০২৩

স্পোর্টস ডেস্ক:

গতবার রিয়াল মাদ্রিদ বুক ভেঙেছিল ম্যানচেস্টার সিটির। এবারও তেমন অনুমান করেছিলেন অনেকে। কিন্তু ফুটবলটা যে সব সময় ভবিষ্যদ্বাণী মেনে চলে না। আর চলে না বলেই তা রোমাঞ্চ ছড়ায় সবুজ গালিচায়। এবার রিয়াল ভাগ্য বদলেছে ম্যানচেস্টার সিটি। রেকর্ড ১৪বার চ্যাম্পিয়নস লিগ জয়ীদের সেমিফাইনালের দ্বিতীয় লেগে ৪-০ গোলে হারিয়ে সেই হারের মধুর প্রতিশোধ নেওয়া গেছে। তাতে ৫-১ অগ্রগামিতায় ম্যানসিটি নিশ্চিত করেছে চ্যাম্পিয়নস লিগ ফাইনাল। প্রথম লেগ শেষ হয়েছিল ১-১ ড্রয়ে।

বুধবার (১৭ মে) রাতে ইতিহাদে ম্যানচেস্টার সিটির সামনে সেই রিয়ালকে খুঁজে পাওয়া যায়নি।

শুরু থেকেই স্বাগতিক দল আধিপত্য দেখিয়ে খেলেছে। বার বার সিটির আক্রমণ সামলাতেই ব্যস্ত থেকেছে নিজেদের অর্ধে। তাতে ১৩ মিনিটে গোল পেয়েই যাচ্ছিল তারা। বামপ্রান্তে গ্রিয়েলিশের ক্রস পেয়ে গোল মুখে হেড করেছিলেন আনমার্কড হাল্যান্ড। দুর্ভাগ্য রিয়াল মাদ্রিদ গোলকিপার কুর্তোয়ার দারুণ রিফ্লেক্সে প্রতিহত হয় তা। তার পরও সেটি বিপদমুক্ত ছিল না। শেষ পর্যন্ত গোললাইন থেকে তা বিপমুক্ত করেছেন আলাবা!

২১ মিনিটে আবারও গোলমুখে হেড করেছিলেন হাল্যান্ড। এবার সেটি এককভাবে রুখে দেওয়ার কৃতিত্ব কুর্তোয়ার। বিশ্বমানের এক সেভে হতাশ করেন সিটিকে। তবে ২৩ মিনিটে আর শেষ রক্ষা হয়নি। ডানপ্রান্তে নিজেদের মাঝে বল দেওয়া-নেওয়া করে দারুণ এক শটে বের্নার্দো সিলভা কুর্তোয়াকে পরাস্ত করে জাল কাঁপিয়েছেন।

৩৭ মিনিটেই ব্যবধান দ্বিগুণ করেন সিলভা। বামপ্রান্ত থেকে গুন্দোগানকে বল বাড়িয়েছিলেন গ্রিয়েলিশ। তিনি বাম পায়ের নিচু নিলে তা পা দিয়ে ঠেকিয়েছিলেন মিলিতাও। কিন্তু সেটি দিক পরিবর্তন করে সিলভার সামনে এলে মুহূর্তেই সেটি জালে পাঠিয়েছেন ম্যানচেস্টার সিটি মিডফিল্ডার।

অথচ দুই মিনিট আগে নিজেদের অর্ধ থেকে বের হয়ে দারুণ এক সুযোগ পেয়েও সেটি কাজে লাগাতে পারেননি রিয়াল মাদ্রিদ মিডফিল্ডার টনি ক্রুস। ২৫ গজ দূর থেকে শট নিলেও সেটি গিয়ে এদেরসনের গ্লাভস ছুঁয়ে আঘাত করে ক্রসবারে!

বিরতির পর রিয়াল মাদ্রিদ আক্রমণে ধার বাড়ালেও সেই ঝলকটা ছিল না। বরং ৭৬ মিনিটে নিশ্চিত হয়ে যায় ম্যানসিটির জয়টা সুনিশ্চিত। স্কোর ৩-০ হয়ে যায় রিয়ালের আত্মঘাতী গোলে। ডি ব্রুইনার ফ্রি কিক থেকে হেড করার চেষ্টায় ছিলেন আকিনজি। সেটি হয়তো তার মাথা স্পর্শ করেনি। কিন্তু রিয়ালের দুর্ভাগ্য পরে সেটি মিলিতাওর গায়ে লেগে জড়ায় নিজেদের জালে! এর তিন মিনিট আগে অবশ্য হাল্যান্ডকে হতাশ করেছিলেন কুর্তোয়া। যোগ হওয়া সময়ে ৯০+১ মিনিটে রিয়ালের কফিনে শেষ পেরেকটি ঠুকেন ম্যানসিটির বিশ্বকাপ জয়ী আর্জেন্টাইন তারকা আলভারেজ।

অসাধারণ জয়ে ট্রেবল ঘরে তোলার স্বপ্নটা বাঁচিয়ে রাখতে পেরেছে পেপ গার্দিওলার দল। যাদের এখন পর্যন্ত চ্যাম্পিয়নস লিগের সর্বোচ্চ সাফল্য ফাইনাল! ২০২১ সালে তারা চেলসির কাছে হেরে শিরোপা বঞ্চিত হয়েছিল। শিরোপা মঞ্চে এবার তাদের সামনে ইন্টার মিলান।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি