বৃহস্পতিবার,২০শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • প্রচ্ছদ » খেলা » কাকে ‘মীরজাফর’ বললেন সাকিবপত্নী শিশির উম্মে আল হাসান


কাকে ‘মীরজাফর’ বললেন সাকিবপত্নী শিশির উম্মে আল হাসান


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
০২.১০.২০২৩

কাকে ‘মীরজাফর’ বললেন সাকিবপত্নী শিশির উম্মে আল হাসান

ডেস্ক রিপোর্ট:

তামিম ইকবাল বিশ্বকাপ দল থেকে বাদ পড়েছেন। কারণ হিসেবে বোর্ড তার ইনজুরির কথা উল্লেখ করেছে। তবে ভক্তরা ধরে নিয়েছেন এর পেছনে কলকাঠি নেড়েছেন সাকিব আল হাসান। ভক্তদের দাবি— অধিনায়ক সাকিবের ইশারাতেই দলে নেই তামিম। এমনকি সাকিবকে বিশ্বাসঘাতক মীরজাফর ডাকতেও ছাড় দেননি তারা।

যদিও এক সাক্ষাৎকারে বিশ্বকাপে দলকে নেতৃত্ব দেওয়া সাকিব জানিয়েছেন, তামিমের বিষয়ে তার কোনো ভূমিকা ছিল না। তার পাঁচ ম্যাচ খেলা কিংবা মিডল অর্ডারে ব্যাটিং করার বিষয়ে তিনি কিছু জানতেন না।

এরই মাঝে সাকিবের ছবিসংবলিত আইসিসির এক পোস্টার শেয়ার করেছেন তার স্ত্রী শিশির উম্মে আল হাসান। সেখানেও উঠে এসেছে মীরজাফর প্রসঙ্গ।

আইসিসির ওই পোস্টারে বর্তমানে বিশ্বকাপ খেলছেন এমন খেলোয়াড়দের মাঝে সর্বোচ্চ উইকেটশিকারিদের তালিকা করা। তাতে তৃতীয় সর্বোচ্চ উইকেট শিকারি হিসেবে জায়গা করে নিয়েছেন সাকিব আল হাসান। সেই পোস্ট শেয়ার করে ক্যাপশনে সাকিবপত্নী শিশির লিখেছেন— ‘ওহ ড্যাম (ধুর ছাই) মীরজাফর ওখানে কীভাবে গেল, নিশ্চিত এটা মিথ্যা।’

আইসিসির ওই ছবিতে সাকিব ছাড়াও আছেন অস্ট্রেলিয়ার মিচেল স্টার্ক, নিউজিল্যান্ডের ট্রেন্ট বোল্ট, টিম সাউদি ও ভারতের মোহাম্মদ শামি। তাদের ছবি ও নামের পাশে বিশ্বকাপে নেওয়া তাদের উইকেটের সংখ্যা উল্লেখ করা হয়েছে।

আসন্ন বিশ্বকাপে অংশ নেওয়া বোলারদের মধ্যে তারা পাঁচজনই সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি। অজি পেসার স্টার্ক ৪৯ উইকেট নিয়েছেন। বোল্ট নিয়েছেন ৩৯ উইকেট। সাউদির উইকেট ৩৪। ভারতের শামি পেয়েছেন ৩১ উইকেট।

বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত সাউদির মতো ৩৪ উইকেট নিয়েছেন সাকিব। তাতে এখনো খেলে যাওয়া ক্রিকেটারদের মধ্যে বিশ্বকাপে যৌথভাবে তৃতীয় সর্বোচ্চ উইকেটশিকারি তিনি। যার মধ্যে ২০১৯ সালে ইংল্যান্ডে অনুষ্ঠিত বিশ্বকাপে নিয়েছেন ১১ উইকেট, আফগানিস্তানের বিপক্ষে নিয়েছেন ৫ উইকেট। বিশ্বকাপে প্রথম বাংলাদেশি বোলার হিসেবে এক ইনিংসে ৫ উইকেট নেওয়ার কীর্তি গড়েন তিনি। ২০১১ ও ২০১৫-এই দুই বিশ্বকাপে ৮টি করে উইকেট নিয়েছেন সাকিব। আর ২০০৭ বিশ্বকাপে নিয়েছেন ৭ উইকেট।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি