সোমবার,১৫ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ


বাবার লালসার শিকার ৫ বছরের শিশু, খুনি দাদী গ্রেফতার


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
২২.০৫.২০১৭


পূর্বাশা  ডেস্ক:

ধর্ষক ছেলেকে বাঁচাতে নাতনিকে খুন করল তার দাদী। ভারতের মহারাষ্ট্রের নাসিক জেলার জাভুলেক–বাণী গ্রামে এই নির্মম ঘটনাটি ঘটেছে। শিশুটির বাবা এবং খুনি দাদীকে গ্রেফতার করেছে পুলিস।

গত শুক্রবার নেশাগ্রস্ত অবস্থায় রাতে বাড়ি ফিরেছিলেন শচীন শিন্দে। স্ত্রীকে সামনে না পেয়ে লালসা মেটাতে নিজের ৫ বছরে শিশুকন্যাকেই বেছে নেয় সে। অভিযুক্তর মা অনুসায়া শিন্দে সেইসময় বাড়িতে ছিল। নিজের চোখে ছোট্ট শিশুটির ওপর পাষণ্ড ছেলেকে অত্যাচার চালাতে দেখেছিল। তবুও সত্ত্বেও বাধা দেয়নি। বরং সে ছেলেকে বাঁচাতে ফন্দি আঁটতে শুরু করে। ভেবেচিন্তে নাতনিকে দুনিয়া থেকে সরিয়ে দেওয়াই যুক্তিযুক্ত মনে করেন তিনি। তাই শ্বাসরোধ করে শিশুটিকে খুন করেন তিনি।

কালওয়ান ডিভিশনের ডেপুটি পুলিশ সুপার দেবীদাস পাটিল জানিয়েছেন, ঘটনার সময় শিশুটির মা বাড়িতে ছিলেন না। তাদের বাড়ির কাছেই একটি স্কুল তৈরি হচ্ছিল। নির্মীয়মান ওই স্কুলটির পিছনে নাতনির দেহ পুতে ফেলেন অনুসায়া দেবী। তারপর নিজেই থানায় যান। নাতনি নিখোঁজ বলে ভুয়া অভিযোগ দায়ের করেন। শিশুটিকে অপহরণ করে খুন করা হয়ে থাকতে পারে বলেও দাবি করেন।

তদন্তে নেমে নির্মীয়মান স্কুলের পিছন থেকে শিশুটির দেহ উদ্ধার করে পুলিশ। মা–ছেলেকে চেপে ধরতেই সত্যি বেরিয়ে আসে। শচীন শিন্দের বিরুদ্ধে ‌৩৭৬ (‌ধর্ষণ)‌ এবং যৌন নির্যাতন থেকে শিশু সুরক্ষা আইনে মামলা দায়ের হয়েছে। খুনের মামলা দায়ের হয়েছে দাদী অনুসায়া দেবীর বিরুদ্ধে।
22/05/2017/ Choity.



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি