সোমবার,২৯শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ


কুমিল্লার তিতাস- মেঘনায় আ’লীগের মনোনয়নে পুরনোদের আধিপত্য


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
১৪.১০.২০২১

স্টাফ রিপোর্টার:
কুমিল্লার মেঘনা ও তিতাস উপজেলায় আগামী ১১ নভেম্বর দ্বিতীয় ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষে আওয়ামী লীগ দলীয় মনোনীত প্রার্থীদের তালিকা ঘোষণা করেছে।

মঙ্গলবার রাতে প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে আওয়ামী লীগের সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ড ও স্থানীয় সরকার জনপ্রতিনিধি মনোনয়ন বোর্ডের যৌথসভা এ প্রার্থী চূড়ান্ত করা হয়।

এতে দেখা গেছে মেঘনা উপজেলার ৮টি ইউনিয়নের মধ্যে ৫টিতেই এবং তিতাস উপজেলার ৯টি ইউনিয়নের মধ্যে ৫টিতেই বর্তমান চেয়ারম্যানরা পুনরায় নৌকা প্রতিক পেয়েছেন।

তারা হলেন, তিতাস উপজেলার সাতানি ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান প্রার্থী সামসুল হক সরকার, জগতপুর ইউনিয়নের বর্তমান মজিবুর রহমান, কড়িকান্দি ইউনিয়নের সাইফুল আলম মুরাদ, মজিদপুর ইউনিয়নের জাহাঙ্গীর আলম, নারান্দিয়া ইউনিয়নের আরিফুজ্জামান খোকা, ভিটিকান্দি ইউনিয়নের বাবুল আহম্মেদ, বলরামপুর ইউনিয়নের নুরনবী, কলাকান্দি ইউনিয়নের হাবিুল্লাহ বাহার ও জিয়ারকান্দি ইউনিয়নের আলহাজ¦ মো. আলী আশরাফ। মেঘনা উপজেলার লুটের চর ইউনিয়নে মোঃ সানাউল্লাহ শিকদার, ভাওরখোলা ইউনিয়নে সিরাজুল ইসলাম, গোবিন্দপুর ইউনিয়নের মোঃ মাইন উদ্দিন তপন, মানিকারচর ইউনিয়নে মোঃ জাকির হোসেন, রাধানগর ইউনিয়নে আঃ বাতেন, বড়কান্দা ইউনিয়নে মোঃ আবুল কাসেম, চন্দনপুর ইউনিয়নে মোঃ আহসান উল্লাহ ও চালিভাঙ্গা ইউনিয়নে আব্দুল লতিফ সরকার।

তিতাস উপজেলায় সদর কড়িকান্দি ইউনিয়নে উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক সাইফুল আলম মুরাদসহ চারজন নতুন মুখ নৌকার মাঝি হিসেবে মনোনীত হওয়ার পর থেকেই স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের শুভেচ্ছায় সিক্ত হয়েছেন।
মেঘনা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সাইফুল্লাহ মিয়া রতন শিকদার বলেন, তৃণমূল জরিপের ভিত্তিতে দল উপজেলার ৮টি ইউপিতে কিছু নতুন মুখকেও (নৌকা) প্রার্থী হিসেবে দলীয় মনোনয়ন দিয়েছেন।

তৃণমুলের মতামতকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেয়ায় তিনি মনোনয়ন বোর্ডের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, তৃণমূলের সুপারিশ জমা দেয়ার পর একটি চক্র মনোনয়ন পাইয়ে দেয়ার কথা বলে প্রার্থীদের সাথে প্রতারনা করে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ পাইছি। ভবিষ্যতে যেন কোন প্রার্থী কারো সাথে টাকার লেনদেন না করার অনুরোধ করেন। কারণ তৃণমূলের মতামতের ভিত্তিতেই মনোনয়ন হয়, অন্য কারো কোন কিছু করার ক্ষমতা নেই। এবারের মনোনয়নই তা প্রমাণ করে।
তিনি আরো বলেন, আমরা আশাবাদী উন্নয়নের প্রতীক নৌকায় ভোট দেবেন এবং বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের দেশ গড়তে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করবেন এলাকাবাসী।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি