বুধবার,১৯শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ


তিনদিন আটকে রেখে নির্যাতনে যুবকের মৃত্যু


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
১৩.০১.২০২২

ডেস্ক রিপোর্ট:

লালমনিরহাটের কালীগঞ্জে তিনদিন আটকে রেখে নির্যাতনে আনোয়ারুল ইসলাম (৩০) নামের এক যুবককে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্থানীয় ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে।

বৃহস্পতিবার (১৩ জানুয়ারি) দুপুরে কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম রসূল এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে বুধবার রাতে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আনোয়ারুল ইসলাম মারা যান।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, উপজেলার পলাশী ইউনিয়নের মদনপুর গ্রামের আনোয়ারুল ইসলামের কাছে টাকা পাওনা ছিলেন কালীগঞ্জ উপজেলার ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের নবনির্বাচিত সদস্য মোজাম্মেল হক। পাওনা টাকা চাইতে আনোয়ারুলের বাড়িতে যান ইউপি সদস্য ও তার লোকজন। পরে টাকা না পেয়ে আনোয়ারুলকে ধরে নিয়ে আসেন। তিনদিন আটকে রেখে তার ওপর চলে পৈশাচিক নির্যাতন।

এসময় তাকে উদ্ধার করতে প্রতিবেশী রোকনুজ্জামান এগিয়ে এলে তাকেও আটকে রেখে নির্যাতন করের ওই ইউপি সদস্য। আনোয়ারুল চিৎকার করলে একপর্যায়ে ইউপি সদস্য মোজাম্মেল হক তার বৃদ্ধাঙ্গুলি কেটে দেন।

পরদিন স্বজনরা তাকে আটকে রাখার খবর পেয়ে ইউপি সদস্যের বাড়িতে ছুটে যান। কিন্তু ইউপি সদস্য তার তাদের লাঠি নিয়ে ধাওয়া করে বাড়ি থেকে বের করে দেন। উপায় না পেয়ে তারা ৯৯৯ নম্বরে কল করেন।

পরে পুলিশ আহত অবস্থায় তাদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। ওইদিন সন্ধ্যায় পাঁচজনকে আসামি করে কালীগঞ্জ থানায় মামলা করা হয়।

মামলার আসামিরা হলেন- জেলার কালীগঞ্জ ইউনিয়নের চলবলা ইউপির ৯ নম্বর ওয়ার্ডের নবনির্বাচিত সদস্য মোজাম্মেল হক (৪৬), তার ছোট ভাই মোশারফ হোসেন ভুট্টু (৩০) ও ছেলে সুজন (২৪)। বাকিদের নাম জানা যায়নি।

বিষয়টি অস্বীকার করে নবনির্বাচিত ইউপি সদস্য মোজাম্মেল হক জানান, এলাকায় দুজন চোর আটক আছেন এমন খবর ছড়িয়ে দেন।

এ বিষয়ে কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম রসুল জানান, এ ঘটনায় প্রধান আসামি ইউপি সদস্য মোজাম্মেল হক ও তার ভাই মোশারফ হোসেন ভুট্টুকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি