মঙ্গলবার,২৩শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ


চাঁদপুরে আদালতের নির্দেশে ২ মাস পর কবর থেকে লাশ উত্তোলন


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
০২.০৭.২০২২

ডেস্ক রিপোর্টঃ

চাঁদপুরের মতলব দক্ষিণ উপজেলায় আদালতের নির্দেশে মজিবুর রহমান নামে এক ব্যক্তির লাশ দুই মাস ১০ দিন পর কবর থেকে উত্তোলন করা হয়েছে।

শনিবার দুপুরে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সেটু কুমার বড়ুয়ার উপস্থিতে লাশটি তোলা হয়।

মজিবুর রহমান মতলব দক্ষিণ উপজেলার নায়েরগাঁও উত্তর ইউনিয়নের ঘোনা গ্রামের খলিলুর রহমানের ছেলে।

পরিবারের অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, মুন্সীগঞ্জের সিপাইপাড়া মদিনা প্লাজায় রেস্টুরেন্টের ব্যবসা করতেন মজিবুর। ১০ বছর আগে সেখানে বল্লোল এলাকার বাসিন্দা রিনা বেগমকে বিয়ে করেন তিনি। বিয়ের পর রিনা মজিবুরকে পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করতে দিতেন না।

গত ২২ এপ্রিল মজিবুর বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা গেছেন জানিয়ে রিনা বেগম তার স্বামীর লাশ পাঠিয়ে দেন মতলবে। প্রথমে মজিবুর রহমানের পরিবার তা বিশ্বাস করে লাশ দাফন করেন।

কিন্তু লাশের সঙ্গে মজিবুরের স্ত্রী না আসায় সন্দেহ হয়। পরে মজিবুরের বাবা বাদী হয়ে রিনা বেগম, রেস্টুরেন্টের কর্মচারী শাওনসহ অজ্ঞাত ছয়জনকে আসামি করে মুন্সীগঞ্জ সিনিয়র আদালতে একটি মামলা করেন।

ওই মামলায় আদালত মজিবুরের লাশ কবর থেকে উত্তোলনের নির্দেশ দেন।

মজিবুরের বোন খাদিজা আক্তার বলেন, আমার ভাইকে ভাবি ও তার লোকজন মেরে ফেলেছে। তারা আমাদের খবর পর্যন্ত দেয়নি।

মামলার বাদী খলিলুর রহমান জানান, আমার ছেলের সম্পত্তি আত্মসাৎ করার জন্য রিনা বেগম, শাওন ও আরও কয়েকজন মিলে পরিকল্পিতভাবে তাকে হত্যা করেছে। আমি হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক বিচার চাই।

নির্বাহী ম্যাজিস্টেট ও মতলব দক্ষিণ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সেটু কুমার বড়ুয়া বলেন, আদালতের নির্দেশে মজিবুরের লাশ কবর থেকে উত্তোলন করা হয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য লাশটি চাঁদপুর মর্গে পাঠানো হয়েছে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি