রবিবার,২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ


দেবিদ্বারে ইউপি চেয়ারম্যানের জমির পাঁচ শতাধিক কলাগাছ কর্তন ও প্রাণনাশের হুমকি


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
০৭.০২.২০২৪

স্টাফ রিপোর্টার :

কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলার ধামতি ইউনিয়নের দুয়ারিয়া এলাকায় ইউপি চেয়ারম্যান মো: মহিউদ্দিন মিঠুর বায়না করা ৫২ শতক জমির ৫ পাঁচ শতাধিক কলা গাছ কেটে নিয়ে জমির চারপাশে তার কাটা বেড়া দিয়ে জোরপূর্বক দখলের চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে হুমায়ুন কবির ও মকবুল হোসেনের বিরুদ্ধে।

এ ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন মিঠুর ছোট ভাই মোঃ সোহরাব হোসেন (৩৭) বাদি হয়ে একই এলাকার মোঃ হুমায়ুন কবির, মকবুল হোসেন, আলামিন বাশার ও আল আমিনের বিরুদ্ধে থানা পুলিশের কাছে একটি অভিযোগ করেছেন।

সোহরাব হোসেন জানান, আমার বড় ভাই ধামতী ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান গত ২০২২ সালের ২২ জুন দুয়ারিয়া এলাকায় ৫২ শতক জায়গা হুমায়ুন কবির ও মকবুল হোসেনের কাছ থেকে কেনার জন্য বায়নাপত্র করে এবং সম্পত্তির মূল্য বাবদ ৪৩ লক্ষ টাকার চেক তাদের প্রদান করেন। তারা পরে টাকা বুঝে নিয়ে আমাদেরকে জায়গা ভোগ দখল বুঝাইয়া দিলে আমরা গত দুই বছর যাবৎ উক্ত সম্পত্তি ভোগ দখল করে সেখানে কলার বাগান করি। আমরা বহুবার তাদেরকে সম্পত্তিটি রেজিস্ট্রি করে দিতে বললেও মকবুল হোসেন প্রবাসে থাকার বাহানা দিয়া ‘অদ্যবধি তারা আমার ভাইয়ের নামে উক্ত সম্পত্তিটি রেজিস্ট্রি করে দেয়নি। না।

গত ৫ ফেব্রুয়ারি বিকাল ৪ টার দিকে হুমায়ুন কবির ও মকবুল হোসেনের নেতৃত্বে আলামিন বাশার ও আলামিনসহ অজ্ঞাতনামা সন্ত্রাসীরা আমাদের বায়নাকৃত জমিতে এসে সেখানে থাকা প্রায় ৫০০টি কলা গাছ কেটে ৫ লাখ টাকার ক্ষতিসাধন করে। এ ঘটনার পর আমি মকবুল হোসেন ও হুমায়ুন কবিরের সাথে যোগাযোগ করলে তারা আমার সাথে খারাপ আচরণ করাসহ আমাদেরকে বিভিন্ন হুমকি ধমকি প্রদর্শন করে এবং উক্ত সম্পত্তি আমাদের নামে রেজিস্ট্রি করে দিবেনা বলে জানায়। এ জমি পুনরায় ভোগ দখল করবার চিন্তা করলে আমাদেরকে প্রাণনাশের হুমকি দেয়। তারা জমির চারপাশে তার কাটার বেড়া দেয়ার চেষ্টা করছে। আমরা এই বিষয়ে থানা পুলিশের কাছে অভিযোগ করেছি।

এ বিষয়ে দেবিদ্বার থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা নয়ন মিয়া জানান, আমরা একটি অভিযোগ পেয়েছি। এ বিষয়ে তদন্ত চলছে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি