বুধবার,২২শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ


কুমিল্লায় নেশার টাকার জন্য স্ত্রীকে ‘বন্ধক’ রেখেছেন মাদকাসক্ত স্বামী


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
২০.০৪.২০২৪

ডেস্ক রিপোর্ট:

নেশার টাকার জন্য স্ত্রীকে ‘বন্ধক’ দিয়েছিলেন মাদকাসক্ত স্বামী আবুল খায়ের। ঘটনাটি ঘটেছে কুমিল্লার বরুড়া উপজেলার শাকুপুর গ্রামে। এ ঘটনায় গতকাল শুক্রবার গণধর্ষণের অভিযোগ এনে চারজনকে আসামি করে বরুড়া থানায় একটি অভিযোগ দেন নির্যাতনের শিকার ওই নারীর বাবা। অভিযোগের পর ওইদিন রাতেই ৩ জনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।

গ্রেপ্তার আসামিরা হলেন শাকুপুর গ্রামের নুরুল ইসলাম নুরা (৩০), একই গ্রামের মনির হোসেন (২৫) ও আদ্রা ইউনিয়নের নরিন্দ্রপুর গ্রামের মহিন উদ্দিন (৩৮)। তবে এ মামলার আরেক আসামি ওই নারীর স্বামী আবুল খায়ের পলাতক রয়েছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, নির্যাতনের শিকার ওই নারীর স্বামী আবুল খায়ের একজন মাদকসেবী।টাকা না থাকায় আবুল খায়ের তার স্ত্রীকে একই গ্রামের মাদককারবারী আবদুল বারেকের ছেলে নুরুল ইসলাম নুরার (৩০) সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করতে চাপ দেন। গত ১৬ এপ্রিল নুরা আবুল খায়েরের বাড়ি গিয়ে তার স্ত্রীকে ধর্ষণ করেন। ওইদিন রাতে ফের ওই নারীকে ধর্ষণ করেন নুরা।

এর পরদিন একই উপজেলার আদ্রা ইউনিয়নের নরিন্দ্রপুর গ্রামের ধানের জলাশয়ের মধ্যখানে একটি মেশিন ঘরে ওই নারী নিয়ে যাওয়া হয়। তখন নুরা, শাকপুর গ্রামের মনির হোসেন (২৫) ও আদ্রা ইউনিয়নের নরিন্দ্রপুর গ্রামের মহিন উদ্দিন (৩৮) ওই নারীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করেন। এরপর ওই নারীকে সিএনজি অটোরিকশায় করে শাকপুর নতুন বাজারে রেখে পালিয়ে যান তারা।

এ বিষয়ে জানতে ওই নারীর বাবাকে ফোন করা হলে ধরেন তার ভাই। তিনি বলেন, সকল আসামি মাদকসেবী। আমার ভাতিজিকে সব সময় টাকার জন্য নির্যাতন করতো তার স্বামী আবুল খায়ের। টাকা দিতে না পারায় আমার ভাতিজিকে টাকার বিনিময়ে আবুল খায়ের তার বন্ধুদের হাতে তুলে দিয়েছে।’

বরুড়া থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. রিয়াজুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, ‘অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে এজহার নামীয় তিন আসামিকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়েছি। তাদের আজ আদালতে পাঠানো হয়েছে। ওই নারী স্বামী আবুল খায়েরকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।’



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি