রবিবার,২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ


ধ্বংসের মুখে চট্টগ্রামের পর্তুগীজ ভবন


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
০৪.০৪.২০১৬

Chattagong-400x271
ডেস্ক রিপোর্টঃ

বন্দরনগরীর সরকারি মহসিন কলেজের পাশে পাহাড় চূড়া। যেখানে কালের সাক্ষী হয়ে দাড়িয়ে আছে এই পর্তুগীজ ভবন। তিনশো বছর আগে এটি নির্মাণ করে পর্তুগীজরা। দোতলা ভবনটিতে ১৬টি কক্ষের পাশাপাশি রয়েছে বারান্দা, দুইঅংশ বিশিষ্ট উন্মুক্ত দরজা-জানালা, খিলানযুক্ত কুলুঙ্গি ও দুটি গম্বুজ। যার ভিতরে রয়েছে পেচানো সিঁড়ি। যা বেয়ে উঠতে গা ছমছম করে যেকারো।

তবে এখন অস্তিত্ব সংকটে অনন্য স্থাপত্যের এই নির্দশন। আগাছায় ছেয়ে গেছে চারপাশ। খসে পড়ছে ইট-সুরকি। ভবনের অনেকাংশে দেখা দিয়েছে ফাটল। তাই ধসে পড়ার আশংকায় ২০০৯ সালে এটিকে পরিত্যক্ত ঘোষণা করে কলেজ কর্তৃপক্ষ।

যে কোনো সময় ধসে পড়তে পারে চট্টগ্রামের কয়েকশ’ বছরের পুরনো এই পর্তুগীজ ভবন। তবে ভবনটি রক্ষায় তেমন কোনো উদ্যোগ নেই প্রশাসনের। যদিও প্রতœতত্ত্ব অধিদপ্তর বলেছে, সিটি কর্পোরেশনের অনাপত্তিপত্র না পাওয়ায় এটি সংরক্ষণের উদ্যোগ নেয়া যাচ্ছে না।

তবে ২০১৩ সালে ভবনটিকে পুরার্কীতি হিসেবে ঘোষণা দিতে সিটি কর্পোরেশনের অনাপত্তিপত্র চায় প্রতœতত্ত্ব অধিদপ্তর। কিন্তু সাড়া না পাওয়ায় এটি সংরক্ষণেও কোন কাজ করতে পারছেনা সংস্থাটি। দ্রুত সংরক্ষণের উদ্যোগ নেয়া না হলে হয়ত কালেরগর্ভে হারিয়ে যাবে উপনিবেশিক আমলের এই নিদর্শন।

স্থানীয়রা বলেন, দ্রুতই এই প্রতœতত্ত্বের সংরক্ষণ করা উচিত।  আর দ্রুত সংরক্ষণের উদ্যোগ না নিলে হয়তো কালের গর্ভে হারিয়ে যাবে উপনিবেশিক আমলের এই নির্দশন।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি