রবিবার,২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ


রাশিয়ার হুমকি পাত্তাই দিল না যুক্তরাষ্ট্র


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
২৯.০৬.২০২১

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

রাশিয়ার হুমকি উপেক্ষা করে কৃষ্ণসাগর ও দক্ষিণ ইউক্রেনে বড় ধরনের সামরিক মহড়ায় নামছে যুক্তরাষ্ট্র ও ইউক্রেন। সোমবার থেকে শুরু হওয়া এ মহড়ায় ৩০টিরও বেশি দেশ অংশ নিচ্ছে।

‘সি ব্রিজ ২০২১’ নামের এই মহড়া চলবে ২ সপ্তাহ। কৃষ্ণসাগরে যুক্তরাজ্যের যুদ্ধজাহাজ নিয়ে ‍রাশিয়ার সঙ্গে বিরোধের আবহের মধ্যে বড় পরিসরের এই মহড়ায় উত্তেজনা আরও বাড়বে বলে মনে করছেন নিরাপত্তা বিশ্লেষকরা।

গেল ২৩ জুন কৃষ্ণসাগরে রুশ জলসীমায় অনুপ্রবেশের অভিযোগে ব্রিটিশ যুদ্ধজাহাজকে সতর্ক করে গুলি ও বোমা নিক্ষেপের দাবি করে মস্কো। তবে রাশিয়ার ওই দাবি অস্বীকার করে ব্রিটেন। যা নিয়ে মস্কো-লন্ডনের মধ্যে দেখা দেয় উত্তেজনা। চলমান উত্তেজনার মধ্যেই কৃষ্ণ সাগর ও দক্ষিণ ইউক্রেনে বড় ধরনের সামরিক উপস্থিতির জানান দিতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র।

মহড়ায় ন্যাটো জোটসহ অন্যান্য দেশের ৫ হাজার সামরিক সদস্য অংশ নিচ্ছেন। এছাড়া প্রায় ৩০ টি যুদ্ধ জাহাজ ও ৪০ টি বিমানসহ ক্ষেপণাস্ত্র বিধ্বংসী মার্কিন রণতরী ইউএসএস রস ও ইউএস মেরিন কোর থাকছে মহড়ায়।

যদিও গত সপ্তাহে ওয়াশিংটনে অবস্থিত রুশ দূতাবাস থেকে ফোন করে এই সামরিক মহড়া বাতিল করার আহ্বান জানানো হয়েছিল। এছাড়া, রুশ প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় হুঁশিয়ার করে বলেছে, মহড়া চললে তারা তাদের জাতীয় নিরাপত্তা সুরক্ষিত রাখতে প্রয়োজনে সব ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করবে। আর মহড়ায় অংশগ্রহণ নিয়ে ইউক্রেন বলছে, যৌথ মহড়ার মধ্য দিয়ে অভিজ্ঞতা অর্জন করাটাই মূল লক্ষ্য।

২০১৪ সালে ইউক্রেনের ক্রিমিয়া উপদ্বীপ দখলে নেয় রাশিয়া। তখন থেকেই ক্রিমিয়া উপকূলের চারপাশের জলসীমাকে রাশিয়া তাদের আওতাধীন বলেই ধরে নিয়েছে। তবে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় এখনও রাশিয়ার ক্রিমিয়া দখলকে স্বীকৃতি দেয়নি এবং পশ্চিমা দেশগুলো এই উপদ্বীপকে ইউক্রেনের অংশ হিসেবেই দেখে।

তাছাড়া পূর্ব ইউক্রেনের বিচ্ছিন্নতাবাদী বিদ্রোহীদেরকে রাশিয়ার সমর্থন দেওয়া নিয়েও ক্ষুব্ধ কিয়েভ। তার ওপর এ বছর ইউক্রেনের সঙ্গে সীমান্তে রাশিয়ার সেনা মোতায়েন দু’দেশের উত্তেজনায় নতুন মাত্রা যোগ হয়।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি