বৃহস্পতিবার,২৩শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ


‘জিন্স-টপ পরায়’ কিশোরীকে নির্মমভাবে হত্যা করেছে দাদা ও চাচা


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
২৭.০৭.২০২১

ডেস্ক রিপোর্টঃ

জিন্স ও টপ পরায় নেহা পাশওয়ান (১৭) নামের এক কিশোরীকে পিটিয়ে হত্যা করেছে তার বাবার পরিবারের সদস্যরা। এ ঘটনায় অভিযুক্তদের আটক করেছে পুলিশ। ব্রিটিশ গণমাধ্যম বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, আধুনিকতায় বিশ্বাসী ছিল ভারতীয় কিশোরী নেহা। সে দেশটির উত্তর প্রদেশের একটি গ্রামে বসবাস করত। সে সাধারণ পোশাকের পাশাপাশি জিন্স-টপ পরতে চাইত। সম্প্রতি জিন্স প্যান্ট ও টপ পরায় তার দাদা ও চাচা তাকে নির্মমভাবে পেটায়। এতে নেহার মৃত্যু হয়।

বিবিসির খবরে আরও বলা হয়েছে, পিটিয়ে হত্যার পর নিজেদের অপরাধ ঢাকতে দাদা ও চাচা নেহার লাশ পানিতে ফেলে দেয়।

নেহার মা শকুন্তলা দেবী পাশওয়ানের বরাত দিয়ে বিবিসির খবরে বলা হয়েছে, উত্তর প্রদেশের দেওরিয়া জেলার সাবরেজি খড়গ গ্রামে বসবাস করেন তার শ্বশুর। নেহার আধুনিক পোশাক নিয়ে তার দাদার পরিবারের সঙ্গে তর্ক হয়। যে কারণে নেহাকে মারধর করেন তার ভাসুর ও শ্বশুর। মারধরের একপর্যায়ে নেহা জ্ঞান হারিয়ে ফেলে। তখন তাকে দ্রুত হাসপাতালে নেওয়ার চেষ্টা করা হলেও পথেই মারা যায় নেহা।

শকুন্তলা দেবী পাশওয়ান জানান, ঘটনা আড়াল করতে নেহার মরদেহ একটি সেতুর ওপর থেকে ফেলে দেওয়া হয়। কিন্তু মরদেহ পানিতে না পড়ে সেতুরই একটা অংশে আটকে যায় এবং ঝুলতে থাকে। পুলিশ পরে সেখান থেকে নেহার মরদেহ উদ্ধার করে।

উত্তর প্রদেশের পুলিশ জানিয়েছে, নিহত কিশোরীর মামা থানায় অভিযোগ দায়ের করেছেন। এ ঘটনায় নিহত নেহার দাদা-দাদি, চাচা-চাচি, চাচাতো ভাই ও মরদেহ বহন করা অটোরিকশার চালকসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। তাদের মধ্যে চারজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি