সোমবার,২৯শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ


কুমিল্লায় প্রাইভেটকারের জন্যই খুন করা হয়েছিল ফাইজুলকে, অভিযানে গ্রেফতার ৫


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
১৪.১০.২০২১

ডেস্ক রিপোর্টঃ

কুমিল্লার দাউদকান্দি থেকে উদ্ধার অজ্ঞাত মরদেহের পরিচয় শনাক্ত হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, তিনি বরিশালের উজিরপুর থানার বরকোঠা গ্রামের মো. আক্কাস সরদারের ছেলে মো. ফাইজুল হক। তিনি একজন প্রাইভেটকার চালক ছিলেন। এ ঘটনায় বুধবার (১৩ অক্টোবর) বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালিয়ে পাঁচজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃতরা হলেন- গাজীপুরের গাছা থানার দক্ষিণ কলমেশ্চর গ্রামের তোফায়েল হোসেনের ছেলে ইয়াসিন মোল্লা ওরফে আকাশ, একই থানার উত্তর সাইলকুর গ্রামের মো. তাজুল ইসলামের ছেলে তানভীর আহমেদ হিমেল (২১), শেরপুর সদর থানার চর শ্রীপুর গ্রামের মৃত মজিবুর রহমানের ছেলে মো. রফিকুল ইসলাম (১৮), গাজীপুরের কালিয়াকৈর থানার হাবিবপুর গ্রামের মৃত ফজলুল হকের ছেলে আকরাম হাসান সানি (২৮) ও টাঙ্গাইল জেলার ঘাটাইল থানার ঘাটাইল পশ্চিমপাড়া গ্রামের মো. হাতেম আলীর ছেলে সোহেল মিয়া (৩৪)।

এর আগে, শনিবার (৯ অক্টোবর) সকালে কুমিল্লার দাউদকান্দি উপজেলার গোয়ালমারী ইউনিয়নের লামচুরি গ্রামের প্রবেশমুখে রাস্তার পাশে একটি মরদেহ পড়ে থাকতে দেখেন এলাকাবাসী। পরে খবর দিলে পুলিশ এসে মরদেহ উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠায়।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, খুনিরা তার গাড়ি ভাড়া করে দাউদকান্দির গোয়ালমারী বাজারের পাশে এনে গলায় বৈদ্যুতিক তার পেচিয়ে তাকে হত্যা করে প্রাইভেটকার নিয়ে পালিয়ে যায়। পরে তার ভাগ্নে সাকিব হাওলাদার (২২) দাউদকান্দি মডেল থানায় মামলা করেন।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, ভাগ্নে সাকিব হাওলাদারের মামা ফাইজুল হক রাজধানী ঢাকার বড় মগবাজার এলাকায় প্রাইভেটকার চালাতেন। ৮ অক্টোবর রাত ১১টার পর মামার মোবাইলফোন বন্ধ পান তিনি। পরদিন পুলিশের মাধ্যমে বিষয়টি জানতে পেরে থানায় মামলা করেন।

এ বিষয়ে দাউদকান্দি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম বলেন, থানায় একটি হত্যা মামলা (৩০২/৩৪ পেনাল কোড) করা হয়েছে। আসামিদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি