শনিবার,২০শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ


কুমিল্লার হোমনায় মাদরাসাছাত্রের গায়ে আয়রনের ছ্যাঁকা: শিক্ষক গ্রেফতার


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
২৬.০৯.২০২৩

ডেস্ক রিপোর্ট:

কুমিল্লার হোমনায় মো. আব্দুল কাইয়ুম (১৫) নামে এক মাদরাসাছাত্রের গায়ে আয়রনের ছ্যাঁকা দেওয়ার অভিযোগে শিক্ষক আতিকুলকে (৩৫) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সোমবার (২৫ সেপ্টেম্বর) রাতে উপজেলার চান্দের চর ইউনিয়নের নয়াকান্দি মমতাজিয়া আছমতিয়া হাফিজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানা থেকে ওই শিক্ষককে গ্রেফতার করা হয়। মো. আব্দুল কাইয়ুম চান্দের চর গ্রামের প্রবাসী আব্দুল কাদিরের ছেলে। সে ওই মাদরাসায় হিফজ বিভাগের ছাত্র।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, পড়া না পারার ১৬ সেপ্টেম্বর রাত ১১টার দিকে নয়াকান্দি মমতাজিয়া আছমতিয়া হাফিজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানার শিক্ষক সাইফুল ইসলাম, আতিকুল ইসলাম ও তিন ছাত্র মিলে আব্দুল কাইয়ুমকে গরম আয়রন দিয়ে ছ্যাঁকা দেয়। এরপর বাড়িতে খবর দেওয়া হয় গরম পানিতে সে জলসে গেছে। পরদিন কাইয়ুমের মা হাফেজা বেগম তাকে মাদরাসা থেকে নিয়ে আসেন। বর্তমানে কাইয়ুম হোমনা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

সোমবার (২৫ সেপ্টেম্বর) আব্দুল কাইয়ুম তার মাকে বিষয়টি খুলে বলে। তার মা বিষয়টি গ্রামবাসীকে জানালে সবাই ক্ষিপ্ত হয়ে থানায় অভিযোগ করলে পুলিশ মাদরাসা থেকে আতিকুল ইসলামকে গ্রেফতার করেন। এ ঘটনায় রাতে হাফেজা বেগম বাদী হয়ে দুই শিক্ষক ও তিন ছাত্রসহ মোট পাঁচজনের বিরুদ্ধে হোমনা থানায় একটি মামলা করেন।

হাফেজা বেগম বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যারা আমার ছেলেকে নির্যাতন করেছে সবাইকে আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি। যেন আগামীতে কোনো মাকে এমন ভাবে সন্তান নির্যাতনের দৃশ্য দেখতে না হয়।

চান্দের চর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক বলেন, খবর পেয়ে সোমবার বিকেলে ঘটনাস্থলে গিয়েছি। যতটুকু শুনেছি ছাত্রদের বলৎকারের সাজা দিতে গিয়ে আব্দুল কাইয়ুমকে ছ্যাঁকা দেওয়া হয়েছে।

হোমনা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জয়নাল আবেদীন এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত বাকিদের গ্রেফতারে আমাদের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি