রবিবার,২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ


১০ ঘণ্টা লড়াই শেষে হামাসের শক্তিশালী ঘাঁটি দখল ইসরায়েলি সেনাদের


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
০৯.১১.২০২৩


ডেস্ক রিপোর্ট:

১০ ঘণ্টাব্যাপী লড়াই চলার পর গাজা উপত্যকায় ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক গোষ্ঠী হামাসের শক্তিশালী একটি ঘাঁটির দখল নিতে সক্ষম হয়েছে ইসরায়েলি সেনারা। বৃহস্পতিবার এক বিবৃতিতে এই দাবি জানিয়েছে ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা বাহিনী (আইডিএফ)।

গাজা উপত্যকার উত্তরাঞ্চলীয় শহর জাবালিয়ার পশ্চিমাংশে অবস্থিত এই ঘাঁটিটির নাম আউটপোস্ট ১৭। হামাসের সামরিক শাখা আল কাসেম ব্রিগেড এবং মিত্র রাজনৈতিক গোষ্ঠী ইসলামিক জিহাদের সঙ্গে ১০ ঘণ্টা সংঘর্ষের পর ইসরায়েলি স্থলবাহিনীর শাখা নাহাল ইনফ্যান্ট্রি ব্রিগেডের সেনারা আউটপোস্ট ১৭’র দখল নিয়েছে বলে বিবৃতিতে উল্লেখ করেছে আইডিএফ।

ওই ঘাঁটিটির সঙ্গে বেশ কয়েকটি সুড়ঙ্গ সংযুক্ত। ঘাঁটি ও সুড়ঙ্গ থেকে বিপুল পরিমাণ অস্ত্র ও বিস্ফোরক জব্দের দাবিও জানিয়েছে ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা বাহিনী।

বুধবারের লড়াইয়ে আল কাসেম ব্রিগেড এবং ইসলামিক জিহাদের কয়েক ডজন সেনা নিহত হলেও নিজেদের ক্ষয়ক্ষতি সম্পর্কিত কোনো তথ্য দেয়নি আইডিএফ। তবে প্রতিরক্ষা বাহিনী জানিয়েছে, পশ্চিম জাবালিয়ায় যখন নাহাল ইনফ্যান্ট্রি ব্রিগেডের সঙ্গে আল কাসেম ব্রিগেড ও ইসলামিক জিহাদের সংঘাত চলছে, তখনও গাজা উপত্যকার বিভিন্ন এলাকায় হামাসের স্থাপনাগুলোকে লক্ষ্য করে অভিযান জারি রেখেছে ইসরায়েলি বিমান বাহিনী।

গত ৭ অক্টোবর ইসরায়েলে অতর্কিত হামলা চালিয়ে শত শত বেসামরিক ইসরায়েলি ও অন্যান্য দেশের নাগরিকদের হত্যা করে হামাস যোদ্ধারা। সেই সঙ্গে ২৪২ জন ইসরায়েলি ও বিদেশি নাগরিককে জিম্মি হিসেবে গাজায় নিয়ে যায় তারা।

জবাবে সেদিন থেকেই গাজায় অভিযান শুরু করে ইসরায়েলের বিমান বাহিনী। সে অভিযানে এখনও চলছে।

হামাসের হামলায় ইসরায়েলে নিহত হয়েছেন ১ হাজার ৪০০ জন। অন্যদিকে ইসরায়েলি বিমান বাহিনীর অভিযানে গাজায় নিহতের সংখ্যা ছাড়িয়ে গেছে ১০ হাজার।

আন্তর্জাতিক রাজনীতি বিশ্লেষকদের মতে, ১৯৫৩ সালের আরব-ইসরায়েল যুদ্ধের পর এই প্রথম এত বড় মাত্রার সংঘাত হচ্ছে মধ্যপ্রাচ্যের আল-আকসা অঞ্চলে। ইসরায়েল জানিয়েছে, হামাসকে পুরোপুরি নির্মূল করার আগ পর্যন্ত এই যুদ্ধ তারা থামাবে না। যুক্তরাষ্ট্র ও তার ইউরোপীয় মিত্ররা ইসরায়েলের এই অবস্থানকে সমর্থনও করেছে। তবে সমর্থন জানানোর পাশাপাশি গাজায় মানবিক বিরতি ঘোষণার জন্য ইসরায়েলকে চাপও দিচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র ও পশ্চিমা বিশ্ব।

সূত্র : টাইমস অব ইসরায়েল



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি