রবিবার,২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ


ইউক্রেনের সামরিক গোয়েন্দা প্রধানের স্ত্রীকে বিষ প্রয়োগের অভিযোগ


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
২৯.১১.২০২৩

ডেস্ক রিপোর্ট:

ইউক্রেনের সামরিক গোয়েন্দা সংস্থার প্রধান লেফটেন্যান্ট জেনারেল কিরিলো বুদানভের স্ত্রীকে হেভি মেটাল দিয়ে বিষ প্রয়োগ করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। স্থানীয় সংবাদমাধ্যমের বরাতে মঙ্গলবার ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এ খবর জানিয়েছে।

মঙ্গলবার গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের উদ্ধৃত করে বাবেল নামের ইউক্রেনীয় নিউজ পোর্টাল এ তথ্য নিশ্চিত করেছে। খবর বিবিসির।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মারিয়ানা বুদানভাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। দীর্ঘসময় ধরে অসুস্থবোধ করার পর তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়।

আরও দুটি ইউক্রেনীয় সংবাদমাধ্যমও নিজেদের সূত্রের বরাতে একই ধরনের খবর প্রকাশ করেছে। এ বিষয়ে প্রকাশ্যে ইউক্রেনের সামরিক গোয়েন্দা সংস্থা কোনো মন্তব্য করেনি।

আরও পড়ুন: রাশিয়া-ইউক্রেনে ঝড়ের তাণ্ডবে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির শঙ্কা

তবে প্রতিবেদনে বলা হয়নি, কথিত এই বিষ প্রয়োগের ঘটনায় রাশিয়াকে দায়ী করা হচ্ছে কিনা।

ইউক্রেনস্কা প্রাভদা বলেছেন, আরও কয়েকজন গোয়েন্দা কর্মকর্তাকেও বিষ প্রয়োগ করা হয়েছে। তবে জেনারেল বুদানভকে টার্গেট করা হয়েছে কিনা, তা সম্পর্কে কোনো ইঙ্গিত দেওয়া হয়নি।

২০২২ সালের ফেব্রুয়ারি রাশিয়ার সর্বাত্মক আক্রমণের পর ইউক্রেনের প্রতিরোধ পরিকল্পনা ও বাস্তবায়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে যাচ্ছে সামরিক গোয়েন্দা সংস্থাটি।

মঙ্গলবার ইউক্রেনীয় গোয়েন্দা সূত্রকে উদ্ধৃত করে বাবেল জানিয়েছে, বুদানভা এখন চিকিৎসাধী এবং চিকিৎসকরা তাকে পর্যবেক্ষণ করবেন।

অজ্ঞাত কর্মকর্তা বলেছেন, বুদানভকে যে বস্তু দিয়ে বিষ প্রয়োগ করা হয়েছে, তা কোনোভাবেই প্রাত্যহিক জীবনে বা সামরিক অভিযানে ব্যবহার করা হয় না।

ইউক্রেনস্কা প্রাভদা নিজেদের সূত্রকে উদ্ধৃত করে বলেছেন, পরীক্ষার পর বিষ প্রয়োগের বিষয়ে নিশ্চিত হওয়া গেছে। সম্ভবত খাবারের মাধ্যমে এই বিষ প্রয়োগ করা হয়েছে। এখন তিনি অনেকটাই সুস্থবোধ করছেন।

১৯৯৩ সালে কিয়েভে জন্ম নেওয়া বুদানভার মনোবিজ্ঞানে মাস্টার্স ডিগ্রি রয়েছে। পরে তিনি রাজনীতিতে জড়ান। কিয়েভের মেয়রের একজন উপদেষ্টা হিসেবে কাজ করছেন।

২০২২ সালে বুদানভা এক সাময়িকীতে বলেছিলেন, ২০১৫-১৭ পর্যন্ত কিয়েভের সামরিক হাসপাতালে স্বেচ্ছাসেবী হিসেবে তিনি কাজ করেছেন।

সেপ্টেম্বরে ৩৭ বছর বয়সি লে. জেনারেল বুদানভ বলেছিলেন, নিরাপত্তার কারণে রুশ আক্রমণের পর থেকে কার্যালয়েই বসবাস করছেন তিনি ও তার স্ত্রী।

এর আগে ইউক্রেনীয় সামরিক গোয়েন্দা সংস্থার এক সিনিয়র কর্মকর্তা বলেছিলেন, ইতোমধ্যে বুদানভকে হত্যার জন্য ১০ বারের বেশি চেষ্টা করা হয়েছে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি