মঙ্গলবার,২৩শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ


যেসব বলিউড তারকা প্রেমে ব্যর্থ


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
১৪.০২.২০২৪

ডেস্ক রিপোর্ট:

রুপালি জগতে নায়ক-নায়িকাদের রসায়ন দেখে মুগ্ধ হন বিনোদনপ্রেমীরা। পর্দার প্রেম অনকে সময় বাস্তব হয়েঢ আসে তারকাদের জীবনে। কখনো সেই প্রেম পূর্ণতা পায়, কখনো আবার হৃদয়কে করে যায় এ ফোড় ও ফোড়! ভালোবাসার বিনিময়ে কষ্ট পেয়েছেন এমন অনকে তারকাই রয়েছেন বলিউডে। সেই কষ্ট লুকিয়ে ক্যামেরার সামনে দর্শকদের আনন্দ দিয়ে চলেছেন তারা।

প্রেমে ব্যর্থ হয়েছেন এমন বলিউড তারকার তালিকায় উঠে আসে প্রীতি জিনতার নাম। নেস ওয়াদিয়ার নামে এক ব্যবসায়ির সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন এই অভিনেত্রী। ২০০৫ সালে আনুষ্ঠানিকভাবেই তার প্রেমের খবর প্রকাশ্যে আসে। পরের চারটি বছর ভালোই কাটে তাদের। কিন্তু ২০০৯ সালে নেসের বিরুদ্ধে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের অভিযোগ তোলেন প্রীতি জিনতা। এ ছাড়া নেস ওয়াদিয়ার মা প্রীতির সঙ্গে ছেলের সম্পর্ক মেনে নেননি। পরে প্রেমের সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে আসেন প্রীতি জিনতা।

বলিউডের বহুল চর্চিত জুটি রানী মুখার্জি-গোবিন্দ। গভীর প্রেম ছিল তাদের মধ্যে। ঘরে স্ত্রী রেখেই রানীর সঙ্গে প্রেমে মজেছিলেন গোবিন্দ। ২০০০ সালে ‘হাদ কার দি আপনে’ সিনেমায় একসঙ্গে প্রথম অভিনয় করেন রানী মুখার্জি-গোবিন্দ। সেই থেকে পরিচয় ও প্রেম। একটি হোটেল রুমে রানী ও গোবিন্দকে একসঙ্গে দেখা গিয়েছিল তাদের। সেই খবর ছাপা হওয়ার পর দারুণভাবে আহত হন গোবিন্দর স্ত্রী। এরপর জল অনেক দূর গড়ায়। সর্বশেষ ভেঙে যায় রানী-গোবিন্দর প্রেম।

অভিনেত্রী কারিশমা কাপুর ও অভিষেক বচ্চনের প্রেম তুমল আলোচনার বিষয় হয়ে উঠেছিল বলিউডে। ১৯৯৭ সালে অভিষেকের বোন শ্বেতা নন্দার বিয়ের অনুষ্ঠানে কারিশমা-অভিষেকের দেখা হয়। তখন কারিশমার প্রেমে পড়েন অভিষেক। দীর্ঘ পাঁচ বছর চুটিয়ে প্রেম করেন তারা। বিষয়টি সেভাবে কেউ জানতেন না তখন। ২০০২ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের প্রেমের ভবর সামনে আসে। সে বছরেই এই যুগলের বাগদানের ঘোষণা হয়। অভিষেকের মা জয়া বচ্চন কারিশমাকে হবু পুত্রবধূ হিসেবে পরিচয় করিয়ে দেন। কিন্তু বাগদানের চার মাস পরই বিয়ে ভেঙে দেন কারিশমা-অভিষেকের পরিবার। তখন বিয়ে ভাঙার কারণ কেউ-ই জানাননি। অবশ্য, জয়া বচ্চন বলেছিলেন— ‘এটি অভিষেকের সিদ্ধান্ত।’

বলিউডের আরেক আলোচিত তারকা জুটি শহিদ কাপুর ও কারিনা কাপুর। মাত্র ২৩ বছর বয়সে কারিনার প্রেমে পড়েন শহিদ। কারিনা কাপুর জানিয়েছিলেন, তাদের দুজনের মধ্যে শক্তিশালী বন্ধন রয়েছে। কিন্তু ২০০৭ সালে ‘যাব উই মেট’ সিনেমার শুটিং চলাকালীন তাদের বিচ্ছেদের খবর সামনে আসে। ঠিক কী কারণে শহিদ-কারিনার প্রেম ভেঙে গিয়েছে তার সঠিক কারণ জানাননি কেউ-ই। তবে কারিনার মা ও বোন নাকি এই সম্পর্ক মেনে নেননি। তাই ভেঙে যায় তাদের প্রেম।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি