বুধবার,২২শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ


ফুটপাতে বসে কথা বলতে রাজি, কিন্তু রাজভবনের অন্দরে যাব না: মমতা ব্যানার্জি


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
১১.০৫.২০২৪


আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

কয়েকদিন আগেই পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল সি.ভি আনন্দ বোসের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠেছিল। এই অভিযোগ করেছিলেন রাজভবনে কর্মরত এক অস্থায়ী নারী কর্মচারী। রাজভবনের দিকে এরকম এক মারাত্মক অভিযোগের আঙুল ওঠায় পশ্চিমবঙ্গের রাজ্য রাজনীতিতে শোরগোল পড়ে গিয়েছিল।

এবার সেই রাজভবনে যেতে দভয়’ পাচ্ছেন রাজ্যটির মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিও। তার অভিমত রাজ্যপাল ডাকলে রাস্তায় বসে কথা হবে, ফুটপাতে বসে কথা বলতেও রাজি। কিন্তু রাজভবনের অন্দরে না তিনি যাবেন না।

শনিবার পশ্চিমবঙ্গের হুগলি এবং হাওড়ার দুইটি নির্বাচনী প্রচারণা থেকে এই ইস্যুতে রাজ্যপালকে নিশানা করেন রাজ্যপালের পদত্যাগ দাবি করেছেন মমতা ব্যানার্জি। তার অভিমত ‘প্রথমে আপনার (রাজ্যপাল) পদত্যাগ করা উচিত।’

গত ২ মে রাজ্যপালের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগ তুলে কলকাতার হেয়ার স্ট্রিট থানায় অভিযোগ দায়ের করেছিলেন ওই নারী। যদিও ভারতীয় সংবিধানের ৩৬১, ৩৬১/২ ধারায় আইনি রক্ষাকবচ পাওয়ার কারণে রাজ্যপালের বিরুদ্ধে কোন পদক্ষেপ নেওয়া যায়নি। এমন অবস্থায় রাজভবনের ভিতরের সিসিটিভি ফুটেজ চেয়ে পাঠিয়েছিল কলকাতা পুলিশ। তবে রাজভবনের তরফে সেসময় কলকাতা পুলিশের হাতে ওই সিসিটিভি ফুটেজ দেওয়া হয়নি। পরিবর্তে গত ৯ মে রাজভবনের তরফে একটি অনুষ্ঠান করে ১ ঘণ্টা ১৯ মিনিটের ওই সিসিটিভি ফুটেজ প্রকাশ্যে আনা হয়। কিন্তু সেই ভিডিও এডিট করে দেখানো হয়েছে বলে অভিযোগ রাজ্যটির মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির। এমনকি গোটা ভিডিও প্রকাশ্যে আনা হয়নি বলেও দাবি মমতার।

মমতার প্রশ্ন ‘একজন নারীর ওপরে অত্যাচার করার আপনি কে? সংবাদ সম্মেলন করে রাজভবনের কিছু ভিডিও এডিট করে নাকি দেখানো হয়েছে। সেখানে কি পুরোটা দেখানো হয়েছে? তার দাবি ‘আমার কাছে পুরো ভিডিওটাই আছে। এখনো তো সব বের হয়নি। আর একটা ভিডিও আমি পেলাম। পেনড্রাইভে আরো কেলেঙ্কারি রয়েছে।’

এরপরই মমতা বলেন ‘নারীরা এখন তোমার কাছে যেতে ভয় পাচ্ছে। আমাকে এখন রাজভবনে ডাকলে আমিও আর যাব না। রাজভবনে আমি আর যাচ্ছি না ভাই! আমাকে রাস্তায় ডাকলে যাব। রাজ্যপালের কথা বলতে হলে আমাকে রাস্তায় ডাকবেন, আমি ফুটপাথে বসে কথা বলে আসবো। কিন্তু যা কীর্তি কেলেঙ্কারি শুনছি আপনার পাশে বসাটাও পাপ।’

মমতার দাবি ‘উনি একটা মেয়ের নয় অনেক মেয়ের সর্বনাশ করেছে। এরকম অনেক ঘটনা আছে। আমি অনেক দিন ধরেই জানি। মহামান্য বলে কথা! তাই কিছু বলতে পারছি না। শোভনীয় দেখায় না। এরাই হচ্ছে বিজেপি। এদের চরিত্র বলে কিছু আছে? মান-সম্মান, ভদ্রতা, সভ্যতা, সংস্কৃতি এদের কিছু নেই।’

মমতার প্রশ্ন ‘একটা রাজনৈতিক দল কখনো এরকম হয়? সেই চোরের মায়ের আবার বড় বড় কথা।’



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি