রবিবার,২৯শে জানুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ


৬ হাজার ৮৫ বাংলাদেশি অভিবাসীর ইউরোপে প্রবেশ


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
০৭.০৯.২০১৫

7700b657ec927e63e4613a949c993b2a1

ডেস্ক রিপোর্ট :

প্রতিদিন গড়ে ৩৪ জন বাংলাদেশি ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে ইউরোপে ঢুকছে। চলতি বছরের প্রথম ছয় মাসে অবৈধভাবে ইইউ-এর দেশে গেছে ৬ হাজার ৮৫ জন বাংলাদেশি। সাগর পাড়ি দিতে রুট হিসেবে ব্যবহার করা হয় লিবিয়া ও তুরস্ককে।

ইইউ সীমান্ত নজরদারি সংস্থা ফ্রনটেক্স এ তথ্য জানিয়েছে। ঝুঁকিপূর্ণ পথে ইউরোপযাত্রী যুদ্ধবিদ্ধস্ত ইরাক ও সিরিয়ার মানুষদের অনুসরণ করছে অনেক বাংলাদেশি।

কয়েক মাস ধরেই নজিরবিহীন জনস্রোত ইউরোপ অভিমুখে। সংঘাতের কারণে ঘরছাড়া ইরাকি বা সিরীয়দের ভিড়ে মাঝেমধ্যেই চোখে পড়ে বাংলাদেশি মুখ।

কোন দেশের কত জন, কোন পথে, ইউরোপে প্রবেশ করে, ইইউ’র পক্ষে তা নজরদারি করে ফ্রনটেক্স। সংস্থাটির মুখপাত্র জানান, ইউরোপে ঢোকার জন্য মূলত: দুটি রুটে ভূমধ্যসাগর পাড়ি দেয় বাংলাদেশিরা। জানুয়ারি থেকে জুন পর্যন্ত, লিবিয়া ও তুরস্ক হয়ে ইইউ-তে ঢোকে ৬ হাজার ৮৫ জন। এদের যার বেশিরভাগই ব্যবহার করে লিবিয়া রুট।

নৌকার ঝুঁকিপূর্ণ যাত্রায়, দেশটির উপকূল থেকে মাল্টা ও ইতালি ঢুকেছে ৩ হাজার ৮৮২ বাংলাদেশি। এছাড়া, তুরস্ক-গ্রিস হয়ে ইইউ-তে যেতে হাজার কিলোমিটার পথের ঝুঁকিও নিচ্ছে অনেকে। পূর্ব ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে গ্রিস; সেখান থেকে সড়ক পথে মেসিডোনিয়া, সার্বিয়া সীমান্ত অতিক্রমের চেষ্টা করছে, দু’হাজার ২০৩ বাংলাদেশি অভিবাসনপ্রত্যাশী।

বৈধভাবে বাংলাদেশিদের লিবিয়া যাওয়ার সুযোগ বন্ধ অনেকদিন ধরেই। অভিবাসন গবেষকরা বলছেন, এক্ষেত্রেও অবৈধ পথ বের করেছে দালালরা।

আন্তর্জাতিক সংস্থাগুলোর হিসেবে, ভূমধ্যসাগর পাড়ি দিয়ে ইউরোপে সবচেয়ে বেশি মানুষ ঢুকেছে জুলাই-আগস্টে। এ দু’মাসের বিস্তারিত তথ্য এখনও প্রকাশ করেনি ফ্রনটেক্স।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি