বৃহস্পতিবার,১৩ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ


কমে আসছে বিদেশি সাহায্যের প্রতিশ্রুতি


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
২৭.০১.২০১৫

fan-hundred-dollar-bills-10910152
স্টাফ রিপোর্টারঃচলতি অর্থ বছরের প্রথম ৬ মাসে বিদেশি সাহায্যের প্রতিশ্রুতি ৩৫ শতাংশে নেমে এসেছে। গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি উন্নয়ন সহযোগির সাথে ধীরে চলো নীতির কারণে বিদেশি সাহায্যের দুয়ার সংকুচিত হয়ে আসছে বলে জানান সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ ইআরডির তথ্য অনুযায়ী, চলতি অর্থ বছরের জুলাই থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত সময়ে বিদেশি সাহায্যের প্রতিশ্রুতি এসেছে ১ বিলিয়ন ডলার। যা গত অর্থ বছরের একই সময়ে ছিল ১.৫৪ বিলিয়ন ডলার। যদিও এই সময়ে বিদেশি সাহায্যের পরিমাণ তার আগের বছরের চেয়ে ১৫ শতাংশ বৃদ্ধি পায়। গত অর্থবছরের আগের অর্থ বছরে যেখানে বিদেশি সাহায্যের পরিমাণ ছিল ১.৩১ বিলিয়ন ডলার। গত অর্থ বছরে তা বেড়ে দাঁড়ায় ১.৫ বিলিয়ন ডলারে।

উন্নয়ন বিশেষজ্ঞরা বলছেন, প্রকল্প বাস্তবায়ন প্রক্রিয়ায় ধীরগতির কারণে কমে আসছে বিদেশি সাহায্যের প্রতিশ্রুতি। এ অবস্থায় বিদেশি সাহায্যের প্রতিশ্রুতি বৃদ্ধির জন্য দক্ষতার উন্নয়ন জরুরি বলে জানান তারা।

গত অর্থ বছরের এই সময়ে সরকার ১.২৮ বিলিয়ন ডলার ঋণ সাহায্য এবং ২২২.২২ মিলিয়ন ডলার অনুদান গ্রহণ করলেও বিতরণ করা হয় ১ বিলিয়ন ডলার। এরমধ্যে ঋণ সহায়তা বাবদ বিতরণ করা হয় ৮১২ মিলিয়ন ডলার এবং অনুদান হিসেবে বিতরণ করা হয় ১৯১.৩ মিলিয়ন ডলার।
উন্নয়ন সহযোগিদের মধ্যে বিশ্বব্যাংক ৩৩৯ মিলিয়ন ডলার, এশিয়ান উন্নয়ন ব্যাংক ৪৯৬.৮১ মিলিয়ন ডলার, জাপান ১২৮.৪১ মিলিয়ন ডলার, চীন ১০০.৩৭ মিলিয়ন ডলার, ইসলামিক উন্নয়ন ব্যাংক ৯১.৪১ মিলিয়ন ডলার এবং ভারত ৮.৬৬ মিলিয়ন ডলার সহায়তা প্রদান করে।

ইআরডির এক সিনিয়র কর্মকর্তা বলেন, গত বছরের জানুয়ারিতে নতুন সরকার দায়িত্ব নেয়ার পর পাইপ লাইনে থাকা কিছু প্রকল্পের ব্যাপারে দেরিতে আলোচনা শুরু হওয়ায় তা সহায়তার প্রতিশ্রুতির উপর প্রভাব ফেলেছে। আমি আশাকরি পরিস্থিতির শিগগিরই পরিবর্তন আসবে। তাছাড়া জাতীয় নির্বাচনকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক অচলাবস্থাও বাংলাদেশে বিদেশি সহায্যের প্রতিশ্রুতির উপর প্রভাব ফেলেছে বলেও জানান তিনি।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি