সোমবার,২০শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ


বাজেট আসে বাজেট যায়, পণ্যমূল্য বাড়লেও বাড়ে না আয়


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
১১.০৬.২০১৭

পূর্বাশা ডেস্ক:

দেশের সামগ্রিক অর্থনৈতিক উত্থান পতনের সব থেকে বড় সাক্ষী থাকে মধ্যম আয়ের মানুষগুলো। কেননা বাজেট, বন্যা, ফসলহানি কিংবা অন্য কোনো কারণে জিনিসপত্রের দাম বেড়ে গেলে তার রক্ষা পাওয়ার কোনো উপায় থাকে না। নানা অজুহাতে নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের দাম তো বাড়ে কিন্তু আয় বাড়ে না।

মধ্যবিত্তের আতঙ্ক শুরু হয়ে যায় ব্যবহার্য পণ্যের দাম বাড়লেই। সরকারি চাকরিজীবীদের আয়ের কিছুটা নিরাপত্তা থাকলেও দ্রব্যমূল্যের বাড়তি চাপ তাদের জীবনকেও করে তুলেছে ঝুঁকিপূর্ণ। আর বেসরকারি খাতের মধ্য আয়ের পেশাজীবীদের সংসার চলে জোড়াতালি দিয়ে।

প্রতিবারের বাজেটও তাদের জীবনে বয়ে আনে আতঙ্ক। কারণ বাজেট ঘোষণা মানেই নতুন করে কিছু পণ্যের দাম বৃদ্ধি, সীমিত আয়ে বাড়তি খরচ। ফলে বাজেটের বাড়তি করের বোঝা আর মূল্যস্ফীতির জাঁতাকলে পড়তে হয় তাকে।

প্রস্তাবিত বাজেট তার ওপর কেমন প্রভাব ফেলবে? এমন প্রশ্নে রাজধানীর শান্তিনগরের বাসিন্দা ফয়সাল শাহেদ সুমন বলেন, ‘বেসরকারি একটি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করে সব কিছু মিলিয়ে মাসে বেতন পাই ৪০ হাজার টাকা। দুই সন্তান এবং স্ত্রীসহ চারজনের সংসার। এ টাকায় কোনো রকমে সংসার চালাতে হয়। এরই মধ্যে বাজেটে বাড়তি যে চাপ আরোপ করা হচ্ছে মানুষের ওপর, তা কীভাবে সামাল দেব, ভেবেই এখন হিমশিম খাচ্ছি।’

বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতির সভাপতি হেলাল উদ্দিন বলেন, ‘বাজেট ঘোষণার দিন থেকেই গ্যাসের দাম বেড়েছে। গত তিন মাসের ব্যবধানে চালের দরও কেজিপ্রতি পাঁচ থেকে আট টাকা বেড়েছে। বাজারে বেশির ভাগ খাদ্যপণ্যের দাম চড়া। এরপর ১ জুলাই থেকে ১৫ শতাংশ ভ্যাট আরোপে আরো মূল্যস্ফীতি ঘটবে।’

তবে কনজুম্যার অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ক্যাব) সহসভাপতি এস এম নাজের হোসেন বলেন, ‘বাজেট ঘোষণার পর পরই ব্যবসায়ীরা অনেক পণ্যের দাম বাড়িয়ে দিয়েছে ভ্যাটের নামে। এ ছাড়া ডলারের দাম বৃদ্ধির অজুহাতেও অনেক জিনিসের দাম বেড়ে গেছে। অথচ ভ্যাট কার্যকর হবে ১ জুলাই থেকে। আর এটাই সাধারণ ভোক্তাদের জন্য বড় ভোগান্তি বয়ে আনবে।’

বাজেট ঘোষণার পর পরই সিপিডির সম্মানীয় ফেলো ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য প্রতিক্রিয়ায় বলেন, ‘সরকার কতগুলো পণ্যে ভ্যাট অব্যাহতি ঘোষণা করেছে। কিন্তু বাজারে সেগুলো কার্যকর হবে কি না তা নিয়ে যথেষ্ট সংশয় আছে। কারণ ভ্যাট কার্যকরের পর থেকে ব্যবসায়ীরা একতরফাভাবে অর্থ আদায় করে থাকে। নতুন ভ্যাট আইন কার্যকরে হোটেল-রেস্তোরাঁর খাবার, বিদ্যুৎ বিলসহ সব পণ্য বা সেবা মূল্যের ওপর ১৫ শতাংশ ভ্যাট আদায়ে বেশি টাকা গুনতে হবে।’

বাজেটে নতুন করে শুল্ক বসানো হয়েছে সাবান, শ্যাম্পু, শেভিং ক্রিম, মশার কয়েল, অ্যারোসলের মতো নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যের ওপর বলেও জানান তিনি।

পূর্বাশানিউজ/১১,জুন ২০১৭/রুমকী

 



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি