শনিবার,১৫ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ


সপ্তাহব্যাপী সেনাবাহিনীর সমরাস্ত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
২৪.০৩.২০২৪

স্টাফ রিপোর্টার:

কুমিল্লা বিমানবন্দরে সপ্তাহব্যাপী বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সমরাস্ত্র প্রদর্শনীর উদ্বোধন হয়েছে।

মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর কুমিল্লা অঞ্চলের উদ্যোগে ২৪ মার্চ থেকে ৩০ মার্চ পর্যন্ত কুমিল্লা বিমান বন্দর এলাকায় এ সমরাস্ত্র প্রদর্শনী শুরু হয়।

রোববার ( ২৪ মার্চ) বেলা ১১ টায় সপ্তাহব্যাপি এ প্রদর্শনী অনুষ্ঠান উদ্বোধন করেন ৩৩ পদাতিক ডিভিশনের জিওসি এবং এরিয়া কমান্ডার বিএ-৪৩২৩ মেজর জেনারেল মোঃ জাহাঙ্গীর আলম, বিএসপি, এনডিসি, পিএসসি।

এ সময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেজর জেনারেল মোঃ জাহাঙ্গীর আলম বলেন, স্বাধীনতা অর্জনের পর জাতির পিতা স্বাধীন জাতি হিসেবে বাঙ্গালী জাতিকে শক্তিশালী করার লক্ষ্যে একটি শক্তিশালী ও আধুনিক সেনাবাহিনী গড়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। অত:পর ১৯৭৪ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান প্রতিরক্ষা নীতি প্রণয়ন করেন, যার আলোকে বর্তমানে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর আধুনিকায়ন ও সম্প্রসারণ হচ্ছে। ধারাবাহিকভাবে বঙ্গবন্ধু কণ্যা, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে বিগত বছরগুলোতে প্রতিরক্ষাক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নয়ন সাধিত হয়েছে। তৈরি হয়েছে নতুন ফর্মেশন, নতুন বিগ্রেড, নতুন ইউনিটসহ বিভিন্ন স্থাপনা। অত্যাধুনিক অস্ত্র ক্রয় করে সামরিক সক্ষমতা বৃদ্ধি করা হয়েছে এবং এর ধারা চলমান রয়েছে। উল্লেখ্য সেনাবাহিনী যে কোন দেশের শক্তির অন্যতম মানদন্ড। আজকের বাংলাদেশের সেনাবাহিনী যে কোন সময়ের চেয়ে অনেক শক্তিশালী এবং দেশের সার্বভৌমত্ব রক্ষায় সদা প্রস্তুত। সমরে আমরা, শান্তিতে আমরা, সর্বত্র আমরা দেশের তরে- এই মূলমন্ত্র বুকে ধারণ করে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর প্রতিটি সদস্য আজ দেশ মাতৃকার জন্য কাজ করে যাচ্ছে। সামরিক কর্মকান্ডের পাশাপাশি বাংলাদেশ সেনাবাহিনী দেশ তথা জাতি গঠনে অবদান রেখে যাচ্ছে। দেশের যে কোন ক্রান্তিলগ্নে সহায়তা প্রদানের জন্য বাংলাদেশ সেনাবাহিনী সবদা প্রস্তুত।

উক্ত প্রদর্শনী আগামী ২৫ ও ২৬ মার্চ দুপুর ২ টা থেকে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত এবং ২৭ মার্চ থেকে ৩০ মার্চ ২০২৪ তারিখ সকাল ১০ টা থেকে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর উদ্যোগে পরিচালিত এই প্রদর্শনীতে বিভিন্ন অত্যাধুনিক স্টল স্থাপন করা হয়েছে। উক্ত স্টলগুলোতে সাঁজোয়া যান, কামানসহ সেনাবাহিনীর বিবিধ অত্যাধুনিক সমরাস্ত্র প্রদর্শন করা হবে। এছাড়াও মুক্তিযুদ্ধের ‘ইতিহাস, জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে সেনাবাহিনীর অবদান, দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা, স্বাস্থ্য ক্যাম্প সেবা ও দেশ গঠনে সেনাবাহিনীর ভূমিকা ও সেনাবাহিনীর নানাবিধ কার্যক্রম বিষয়ক স্টল রয়েছে।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি