বুধবার,২২শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ
  • প্রচ্ছদ » রাজনীতি » শেখ হাসিনার অধীনে কেয়ামত পর্যন্ত সুষ্ঠু নির্বাচন আর হবে না: রিজভী


শেখ হাসিনার অধীনে কেয়ামত পর্যন্ত সুষ্ঠু নির্বাচন আর হবে না: রিজভী


পূর্বাশা বিডি ২৪.কম :
০১.০৫.২০২৪

ডেস্ক রিপোর্ট:

বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যডভোকেট রুহুল কবির রিজভী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতকালের বক্তব্যের তীব্র সমালোচনা করেছেন। বিএনপির এই সিনিয়র নেতা বলেন, অতি বাম আর অতি ডানরা আপনাকে ক্ষমতাচ্যুত করতে চায় না। এ দেশের মানুষ আপনাকে আর সিংহাসনে দেখতে চায় না। জনগণ আপনাকে ক্ষমতার মসনদ থেকে সরিয়ে দেবে। কারণ আপনি জনগণের ভোটে নির্বাচিত নন, জনগণ ভোট দেয়নি। আপনি হলেন অতি ফ্যাসিবাদ, অতি জুলুমবাজ, অতি বলপ্রয়োগকারী, অতি ভারতের তাবেদার।প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে উদ্দেশ করে রিজভী আরও বলেন, জনগণ আপনার পতন চায়। ভোটের অধিকার চায়, মতপ্রকাশের স্বাধীনতা চায়। এভাবে জুলুম-নির্যাতন করে আর ক্ষমতায় থাকা যাবে না।

বুধবার দুপুরে রাজধানীর কচুক্ষেত এলাকায় কাফরুল থানা বিএনপির উদ্যোগে এক কর্মসূচিতে তিনি এসব কথা বলেন। প্রচণ্ড তাপদাহে অতিষ্ট মানুষদের মাঝে বিশুদ্ধ খাবার পানি, স্যালাইন ও লিফলেট বিতরণের এই কর্মসূচিতে আরও উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির সদস্য সচিব আমিনুল হক, কেন্দ্রীয় বিএনপির সহ-অর্থনৈতিক বিষয়ক সম্পাদক মাহমুদুর রহমান সুমন, নির্বাহী কমিটির সদস্য তাবিথ আউয়াল ও তরিকুল আলম তেনজিং, মহানগর উত্তর বিএনপির আনোয়ারুজ্জামান আনোয়ার, ফেরদৌসি আহমেদ মিষ্টি, এবিএমএ আব্দুর রাজ্জাক প্রমুখ।

আরও উপস্থিত ছিলেন যুবদলের সহ-সভাপতি রুহুল আমিন আকিল, বিএনপি নেতা জাকির হোসেন, ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তৌহিদুর রহমান আউয়াল, ছাত্রদল নেতা মিরাজ, আশরাফুল আসাদ প্রমুখ।

রিজভী বলেন, বর্তমানে যে ভয়াবহ দুর্যোগ চলছে তা শুধু প্রাকৃতিক দুর্যোগ নয়। এটি ক্ষমতাসীনদের অপরিকল্পিত উন্নয়নের সৃষ্ট দুর্যোগ। তথাকথিত উন্নয়নের নামে পদ্মা সেতু, মেট্রোরেল নির্মাণ, ফ্লাইওভার নির্মাণের নামে শুধু লুটপাট করা হয়েছে। আর সে টাকা বিদেশে পাচার করে অট্রেলিয়া, দুবাই, কানাডায় সেকেন্ড হোম তৈরি করা হয়েছে।

তিনি বলেন, শেখ হাসিনার অধীনে কেয়ামত পর্যন্ত সুষ্ঠু নির্বাচন হবে না। ২০১৮ সালে বিএনপি জাতীয় নির্বাচনে গিয়েছিল। আওয়ামী লীগ আগের রাতে ভোট কেটে নিয়ে ক্ষমতায় গিয়েছিল। বিএনপির মতো এত বড় রাজনৈতিক দলকে ৫টি সিট ধরিয়ে দিয়েছিল। বিএনপি নেতাকর্মীদের ওপর জুলুম করে, নির্যাতন করে, মিথ্যা মামলা দিয়ে কারাগারে প্রেরণ করে, মৃত ও হজ্ব থাকা নেতাদের নামে, মৃত্যুশয্যায় থাকা নেতাকর্মীদের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে, গুম-খুন করে ভোট ডাকাতি করেছিল তারা।

মহানগর উত্তরের সদস্য সচিব আমিনুল হক বলেন, এ দুর্যোগেও জনগণের পাশে নেই আওয়ামী লীগের মন্ত্রী-এমপিরা। কারণ তারা জনগণের ভোটের নির্বাচিত নয়, তাদের জনগণের ভোটের দরকার হয় না। ঢাকা মহানগরের উত্তরের ৭১টি ওয়ার্ডে জনস্বার্থে এ কর্মসূচি চলবে বলেও জানান তিনি।



এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি